kalerkantho

নিখোঁজের ৩ দিন পর যুবকের লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিখোঁজের তিন দিন পর আলফাডাঙ্গা সদরের নাজমা ক্লিনিকের ব্যবস্থাপক ওয়াকিব শিকদারের (২৪) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিল্লাল মোল্লা (২৪) নামের এক যুবককে আটকের পর তাঁর দেওয়া তথ্য মতে ওই রাতেই ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার মিঠাপুর চরপাড়া থেকে ওয়াকিব শিকদারের লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত ওয়াকিব শিকদার বোয়ালমারী উপজেলার রূপাপাত ইউনিয়নের দেউলি গ্রামের আব্দুল জলিল শিকদারের ছেলে। তিনি আলফাডাঙ্গা নাজমা মেডিকেয়ার ক্লিনিকে ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করতেন।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই ওয়ামিন শিকদার বাদী হয়ে একই গ্রামের ইউসুফ মোল্লার ছেলে বিল্লাল মোল্লাসহ আরো কয়েকজন অজানা আসামি দিয়ে একটি হত্যা মামলা করেন। পরে বিল্লালকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এ ছাড়াও পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দেউলি গ্রামের সামাদ মোল্লার ছেলে লাকিব (২০) এবং সোহেল শেখের ছেলে ইমনকে (১৮) আটক করেছে।

আলফাডাঙ্গা থানার ওসি মো. রেজাউল করিম জানান, গত মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে বিল্লাল ওয়াকিবকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যান। এরপর থেকে ওয়াকিব নিখোঁজ ছিল। অনেক খুঁজেও ওয়াকিবকে না পেয়ে তাঁর বন্ধুরা বৃহস্পতিবার বিল্লালকে পুলিশে সোপর্দ করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বিল্লাল ওয়াকিবকে পিটিয়ে খুন করা হয়েছে বলে জানায়। পরে তাঁর দেওয়া তথ্য মতে উপজেলার মিঠাপুর চরপাড়া বারাশিয়া নদীর পাড়ের একটি জঙ্গল থেকে পুলিশ ওয়াকিবের লাশ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য