kalerkantho

ফিটনেস

ব্যায়ামে তাড়াহুড়া মোটেও ভালো নয়

২৩ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্যায়ামে তাড়াহুড়া মোটেও ভালো নয়

শরীর গঠনের জন্য ব্যায়ামের বিকল্প নেই। শক্তপোক্ত শরীর চাইলে তো বেশি বেশি ব্যায়াম করতেই হবে। আর এখানেই বিপত্তি। অনেকেই দ্রুত পেটানো শরীর পেতে ইচ্ছামতো ব্যায়াম শুরু করে। সময়ের দিকে খেয়াল না রেখে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ব্যায়াম করে চলে। ভাবটা এমন যে, কয়েক দিনেই তৈরি করে ফেলব শক্তপোক্ত শরীর। তারা কখনোই মনে করে না, অতিরিক্ত ব্যায়াম ফলে উল্টো ফল বয়ে আনতে পারে। অথচ এটাই স্বাভাবিক। ব্যায়ামের মাত্রা বেশি হয়ে গেলেই বিভিন্ন রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে। আবার ব্যায়ামের উপকরণের ভুল ব্যবহারে সমস্যা দেখা দিতে পারে। অতিরিক্ত ব্যায়ামের ফলে কী সমস্যা হতে পারে তা একটু জেনে নেওয়া যাক।

 

শরীরের সংযোগস্থলে ব্যথা

অতিরিক্ত ব্যায়ামের ফলে শরীরের বিভিন্ন সংযোগস্থলে ব্যথা হয়। এ কারণে একজন ব্যায়াম বিশেষজ্ঞের অধীনে ব্যায়াম করা উচিত। বিশেষজ্ঞের অভাবে ব্যায়ামের ভুল পদ্ধতির কারণেও সংযোগস্থলে ব্যথা হতে পারে।

ঘুমের সমস্যা

ব্যায়াম ভালো ঘুমের সহায়ক। আবার এটাও ঠিক যে অতিরিক্ত ব্যায়ামের ফলে স্বাভাবিক ঘুমের ব্যাঘাত হতে পারে।

ঘন ঘন অসুস্থতা

ব্যায়ামের প্রকৃত উদ্দেশ্য শরীরের সুস্থতা। শরীরকে সতেজ রাখা। কিন্তু সেই ব্যায়াম যদি অতিরিক্ত হয়ে যায় তাহলে উল্টো ঘটনা ঘটা স্বাভাবিক। অতিরিক্ত ব্যায়ামের অর্থই হচ্ছে অসুস্থতাকে আমন্ত্রণ জানানো। ব্যায়াম করায় দুই ধরনের ব্যথা হয়। যখন প্রথম ব্যায়াম করা হয় তখন শরীরের বিভিন্ন অংশে ব্যথা হয়। এটা খারাপ কিছু নয়, বরং ভালো লক্ষণ। আর দ্বিতীয় ব্যথা হয় অতিরিক্ত ব্যায়ামের ফলে। এটি ভালো লক্ষণ নয়।

মন্থরতা

ব্যায়ামে শরীরে যেখানে চনমনে ভাব আসার কথা, অতিরিক্ত ব্যায়ামের ফলে সেখানে মন্থরতা দেখা দিতে পারে। চলাফেরায় সেই চনমনে ভাব এবং গতির অভাব দেখা দেয়।

ব্যর্থতা

সাফল্যের জন্য পরিশ্রমের বিকল্প নেই। যত বেশি অনুশীলন তত বেশি সাফল্য। সেই পরিশ্রম যদি অতিরিক্ত হয়ে যায় তাহলে তা কিন্তু আপনাকে ব্যর্থতার দিকে এগিয়ে দিতে পারে।

মন্তব্য