kalerkantho

মেননের গাড়িতে ধাক্কা, বাসের ফিটনেস-চালকের লাইসেন্স নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর মহাখালীতে গতকাল শুক্রবার সাবেক মন্ত্রী ও ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপিকে বহনকারী ব্যক্তিগত গাড়িতে ধাক্কা দিয়েছে একটি বাস। গাড়িটি ক্ষতিগ্রস্ত হলেও রক্ষা পান মেনন। চেকপোস্ট বসিয়ে ট্রাফিক সার্জেন্টের দায়িত্ব পালনের সময় মহাখালী পুলিশ বক্সের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ বলাকা পরিবহনের ওই বাসটির চালক ও তার সহকারীকে গ্রেপ্তার করেছে।

পরে দেখা গেছে, বলাকা পরিবহনের বাসটির ফিটনেস সনদ নেই এবং এর চালকেরও লাইন্সেস নেই। এর আগে থেকেই বাসটির বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

পুলিশ জানায়, সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ঘটনাটি ঘটে। ব্যক্তিগত প্রাডো গাড়ি দিয়ে রাশেদ খান মেনন বিমানবন্দরের দিকে যাচ্ছিলেন। মহাখালী এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় বলাকা পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব-১১-৯৬৮৪) তাঁর গাড়িটিকে ধাক্কা দেয়। ঘটনাস্থলে থাকা কর্তব্যরত সার্জেন্ট বাসটি থামিয়ে চালক ও হেলপারকে আটক এবং বাসটি জব্দ করেন।

এ ঘটনায় বনানী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন রাশেদ খান মেননের গাড়ির চালক সুজন। মামলায় বাসের চালক আমানুল্লাহ ও হেলপার দুলাল মিয়াকে আসামি করা হয়েছে।

মহাখালী এলাকায় কর্তব্যরত ট্রাফিক সার্জেন্ট এ এম মনসুর আল হাদী সাংবাদিকদের জানান,  মহাখালী ফ্লাইওভারের নিচে চেকপোস্ট বসিয়ে দায়িত্ব পালন করছিলেন তাঁরা। তিনি বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৭টার দিকে দৌড়ে এসে এক পুলিশ সদস্য জানালেন দুর্ঘটনার কথা। সামনে গিয়ে দেখি মেনন স্যারের গাড়ি। ওই চালককে আটকে রেখে বনানী থানায় খবর দেই।’ তিনি বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে ওই চালকের কাছে গাড়ির কাগজপত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্স আমরা দেখতে চেয়েও পাইনি।’

বনানী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) বোরহান উদ্দিন জানান, চালকের কাছে ভারী গাড়ি চালানোর ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া যায়নি। তার কাছে পাওয়া গেছে হালকা যান চালানোর লাইসেন্স। ওই লাইসেন্স দিয়েই সে বাসের মতো ভারী যান চালাচ্ছিল। তিনি আরো জানান, দুর্ঘটনায় সম্পৃক্ত বাসটির বিরুদ্ধে আগেও মোবাইল কোর্টে মামলা করা হয়েছে।

মন্তব্য