kalerkantho

ডিসিসিআইয়ের সেমিনারে বক্তারা

পাটশিল্পকে এগিয়ে নিতে সমন্বিত পরিকল্পনা চাই

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে পাটশিল্প গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে মতামত দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। এ জন্য সমন্বিত পরিকল্পনা দরকার বলে মনে করছেন তাঁরা। গতকাল সোমবার ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) আয়োজনে ‘পাটশিল্পের উন্নয়নে বহুমুখীকরণ এবং  সম্ভাবনা ও প্রতিবন্ধকতা’ শীর্ষক সেমিনারে তাঁরা এসব কথা বলেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। বিশেষ অতিথি ছিলেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান। ডিসিসিআইয়ের সভাপতি ওসামা তাসিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিসিসিআইয়ের পরিচালক রাশেদুল করিম মুন্না।

প্রধান অতিথি বক্তব্যে গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, ‘বাংলাদেশে পাটশিল্পের বিপুল সম্ভাবনা আছে। তাই এই খাতকে সরকার অগ্রাধিকার দিচ্ছে। তবে এ ক্ষেত্রে গবেষণা ও প্রযুক্তির ওপর জোর দিতে হবে।’ শিগগিরই রাজধানীর মতিঝিলে একটি ডিসপ্লে সেন্টার করা হবে বলে তিনি জানান।

মূল প্রবন্ধে রাশেদুল করিম মুন্না বলেন, ‘পাটশিল্প এগিয়ে নিতে এর মূল্য সংযোজন জরুরি। ইইউ এই বছর ৮০ শতাংশ প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করতে আইন পাস করেছে। এই বাজারে প্রায় ৪৫ বিলিয়ন ব্যাগ ব্যবহার করা হয়। বাজার ধরতে আমাদের এখনই উদ্যোগ নিতে হবে।’

প্রধান অতিথি হোসেন জিল্লুর বলেন, ‘পাটশিল্পের জন্য একটি গতিশীল কর্মসূচি দরকার। আগামী বাজেটে প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী খাতে দুটি তহবিল করার জন্য জোর দেওয়া জরুরি।’

মন্তব্য