kalerkantho

নতুন মাদক আইস-ক্রিস্টাল

চক্রের হোতা হাসিব গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজধানীর জিগাতলার একটি বাসায় নতুন ধরনের মাদকদ্রব্য ‘আইস’, ‘ক্রিস্টাল’ ও ‘এমডিএমএ’ তৈরি করে কারবার চালিয়ে যাওয়া চক্রের মূল হোতাকে গ্রেপ্তার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি)। গতকাল শনিবার দুপুরে মিরপুরের পাইকপাড়ার বশিরউদ্দিন স্কুলের সামনে থেকে হাসিব মুয়াম্মার রশিদ (৩২) নামের এ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ডিএনসির কর্মকর্তারা জানান, হাসিব একজন সফটওয়্যার প্রকৌশলী। মালেশিয়ায় লেখাপড়া করতে গিয়ে তিনি মাদক কারবারে জড়িয়ে পড়েন। দেশে ইয়াবার বিকল্প হিসেবে নতুন ধরনের মাদক তৈরি করে কারবার শুরু করেন হাসিব।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ডিএনসি রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে রাকিব উদ্দিন এবং ইস্কাটন এলাকা থেকে জাকারিয়া ও হেলাল হোসেন ওরফে সাদ্দাম নামে তিনজনকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে। এ সময় ‘আইস’ নামের মাদকের আলামত পেয়ে ২৭ ফেব্রুয়ারি জিগাতলার ৭/এ রোডের ৬২ নম্বর বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখানে একটি বাসার নিচতলায় ছোট ল্যাব দেখতে পান অভিযানকারীরা। ওই জায়গা থেকে ২৯ গ্রাম ‘আইস’ ছাড়াও ‘ক্রিস্টাল’ ও ‘এমডিএমএ’ নামের দুই ধরনের মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়। এরপর ডিএনসির গোয়েন্দারা চক্রটির ব্যাপারে তদন্ত শুরু করেন।

ডিএনসির মহাপরিচালক মোহাম্মদ জামাল উদ্দীন আহমেদ বলেন, আইস পিল তৈরির ল্যাবের মূল হোতা হাসিব মুয়াম্মার রশিদ। তিনি একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। তাঁর বাবাও সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। জিগাতলার ৬২ নম্বর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বেইসমেন্টে এ মাদক তৈরির আধুনিক ল্যাবরেটরির সন্ধান পাওয়া যায়। সেখানে আইস ও এমডিএমএসহ বিপুল পরিমাণ মাদকের সন্ধান পাওয়া যায়। আগেই হাসিব রশিদের ব্যবহৃত আটটি ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড জব্দ করা হয়েছে। ডিএনসির সহকারী পরিচালক (ঢাকা উত্তর) মোহাম্মদ খোরশিদ আলম বলেন, চক্রটির প্রধান হাসিব মালয়েশিয়ায় পড়াশোনা করতে গিয়ে মাদক পাচারের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন।

মন্তব্য