kalerkantho

ভ্যানেই অঙ্গার কুড়িগ্রামের তিন তরুণ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



কুড়িগ্রামের হতদরিদ্র তিন তরুণ চকবাজারের একটি জুতার দোকানে কাজ করতেন। বুধবার রাতে তাঁরা দোকান থেকে মালপত্র নিয়ে অন্য দোকানে সরবরাহ করতে যাচ্ছিলেন। কিন্তু এর আগেই আগুন তাঁদের প্রাণ কেড়ে নেয়। গতকাল শুক্রবার এই তিনজনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

ওই তিন তরুণ হলেন নাগেশ্বরী উপজেলার আবু বক্করের ছেলে খোরশেদ আলম (২২), একই উপজেলার হাজিপাড়া গোবর্ধনকুঠি গ্রামের রাজু মিয়া (১৮) ও সদর উপজেলার ভোগডাঙ্গা ইউনিয়নের শিবের চর মাঠেরপার এলাকার আব্দুল কাদেরের ছেলে সজীব (২৩)।

খোরশেদ আলমের মামা নবিউল্লাহ জানান, মা-বাবার একমাত্র ছেলে ছিলেন খোরশেদ। ছয় শতকের বসতভিটা ছাড়া আর কিছুই নেই তাঁদের। জুতার দোকানে কাজ করে তিনি দিনমজুর বাবাকে সাহায্য করতেন।

রাজু মিয়ার ভাই মাসুদ জানান, তাঁরা দুই ভাই। বাবার মৃত্যুর পর রাজু ঢাকায় জুতার দোকানে কাজ নেন। বসতভিটা ছাড়া তাঁদের কোনো জমি নেই। সজীবের বাবা আব্দুল কাদের বলেন, ‘মোর একনামাত্র বেটা, তাইও চলি গেইল। এলা কাক নিয়া থাকমো।’

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন জানান, নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে।

মন্তব্য