kalerkantho


রড দিয়ে পিটিয়ে চুরির স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা!

নরসিংদী প্রতিনিধি   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



নরসিংদীর পলাশে মোবাইল ফোনসেট চুরির অভিযোগ এনে দিনমজুর তিন তরুণকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় দায়ের হওয়া অভিযোগে বলা হয়েছে, ঘোড়াশাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কর্মকর্তা হাফিজ আহাম্মেদ তিনজনকে নিজের বাসায় আটকে রেখে বেঁধে রড দিয়ে পিটিয়ে তাদের কাছ থেকে স্বীকারোক্তি আদায়ের চেষ্টা করেছেন। পরে ক্ষতিপূরণ হিসেবে পরিবারগুলোর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তবে অভিযুক্ত কর্মকর্তা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

নির্যাতিতরা হলো—পলাশ বাজার এলাকার ইদ্রিস আলীর ছেলে ইব্রাহিম মিয়া (১৯), কামাল মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া (১৮) ও আবু তাহেরের ছেলে কাউছার মিয়া (১৮)। তারা বিভিন্ন সময় বাসাবাড়ির মালামাল ওঠা-নামাসহ দিনমজুরের কাজ করে।

জানা গেছে, গত রবিবার সন্ধ্যায় ঘোড়াশাল তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আবাসিক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার রাতে নির্যাতিত ইব্রাহিম পলাশ থানায় হাফিজ আহাম্মেদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। হাফিজ আহাম্মেদ ঘোড়াশাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৫ নম্বর ইউনিটের ইলেকট্রিক্যাল ফোরম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন।

ইব্রাহিম গতকাল বুধবার সাংবাদিকদের বলেছে, ‘রবিবার হাফিজ আহম্মেদের বাসার মালামাল পলাশ ২৫/৫১ নম্বর থেকে প্রভাতি ৩/৩২ নম্বর বাসায় নেওয়ার কাজ করি। সন্ধ্যায় মজুরি নেওয়ার সময় তিনি মোবাইল ফোন হারানোর কথা বলে আমরা কেউ নিয়েছি কি না জানতে চান। নিইনি বলে জানালে তিনি আমাদের তিনজনকে একটি রুমে আটকে রাখেন। কিছুক্ষণ পর তিনি আরো তিনজন লোক এনে আমাদের রশি দিয়ে বেঁধে মোবাইল ফোন বের করে দেওয়ার কথা বলে রড দিয়ে পেটাতে থাকেন। একপর্যায়ে আমাদের পরিবারকে খবর দিয়ে ক্ষতিপূরণ নিয়ে আমাদের ছেড়ে দেন।’

 



মন্তব্য