kalerkantho


রাজবাড়ীতে তিন এতিম শিশুকে ধর্ষণ ও পীড়নের অভিযোগ

শিক্ষক গ্রেপ্তার

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে এতিমখানা ও বৃদ্ধাশ্রমে অবস্থান করা তিন শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ ও যৌন পীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই অভিযোগে গতকাল মঙ্গলবার সকালে রবিউল ইসলাম (২৯) নামে ওই প্রতিষ্ঠানের এক শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিউল একই উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামের উমর আলীর ছেলে।

বালিয়াকান্দি থানার এসআই নুর মোহাম্মদ জানান, উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের মধুপুর পরিজাত এতিমখানা ও বৃদ্ধাশ্রমের শিক্ষক রবিউল ইসলাম চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রলোভন দেখিয়ে কয়েক মাস ধরে ধর্ষণ করেন। একই এতিমখানার অন্য ছাত্রীকে টাকার লোভ দেখিয়ে যৌন পীড়ন করেন। আরেক ছাত্রীকেও একই কায়দায় গত ২ জানুয়ারি দুপুরে যৌন পীড়ন করেন। ওই ছাত্রীরা বিষয়টি এতিমখানা কর্তৃপক্ষকে জানালে প্রতিষ্ঠানের ভাইস চেয়ারম্যান ও মধুপুর গ্রামের বেলায়েত হোসেনের ছেলে মো. ফারুক আহম্মেদ বাদী হয়ে গতকাল সকালে বালিয়াকান্দি থানায় মামলা করেন। ওই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ধর্ষণ ও যৌন পীড়নের দায়ে শিক্ষক রবিউল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বালিয়াকান্দি থানার ওসি এ কে এম আজমল হুদা জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শিক্ষক রবিউল ইসলাম ওই তিন ছাত্রীকে ধর্ষণ ও যৌন পীড়নের কথা স্বীকার করেছেন। তাঁকে রাজবাড়ী আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে রাজবাড়ীতে মেয়েকে (১১) ধর্ষণের দায়ে

ওই ছাত্রীর বাবাকে যাবজ্জীবন করাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরো এক বছরের বিনাশ্রম করাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গত সোমবার বিকেলে রাজবাড়ীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের শারমিন নিগার এ দণ্ডাদেশ দেন।

নাজিরপুরে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ

এদিকে নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি জানান, নাজিরপুরে শারীরিক ও বাকপ্রতিবন্ধী এক তরুণীকে (২৫) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত সোমবার দুপরে উপজেলার দেউলবাড়ী ইউনিয়নের বিল ডুমুরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই দিন রাতে ধর্ষিতার ভাই বাদী হয়ে ধর্ষক নয়ন রায়ের (২০) নামে নাজিরপুর থানায় মামলা করেন। গতকাল সকালে ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ নয়নকে গ্রেপ্তার করে। নয়ন ওই গ্রামের নিরঞ্জন রায়ের ছেলে।



মন্তব্য