kalerkantho

কৃষি ব্যাংক-সমাজসেবার ঠেলাঠেলি

ভাতা পাচ্ছেন না ১৪ শ বয়স্ক বিধবা প্রতিবন্ধী

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



একটি খাবার হোটেলের আয় থেকে কোনো মতে সংসার চললেও আব্দুর রহিম (৭০) নিজের ওষুধ-পথ্যাদির খরচ চালাতেন সরকারের কাছ থেকে পাওয়া বয়স্ক ভাতার টাকায়। সর্বশেষ গত আগস্ট মাসে তিন মাসের ভাতা পেলেও পরের তিন মাসের পাননি। কৃষি ব্যাংকের বারান্দায় ঘোরাঘুরিও কম করেননি। ডিসেম্বরে তিনি মারা যান।

ময়মনসিংহের নান্দাইল পৌর এলাকার বাসিন্দা রহিমের মতো এলাকার আরো পাঁচজন বয়স্ক ব্যক্তি মারা গেছেন, যাঁরা জুলাই-আগস্ট-সেপ্টেম্বরের ভাতা পাননি। এই ভাতা উত্তোলনের সময় ছিল গত নভেম্বরে। এরপর থেকে এখন পর্যন্ত সাত মাসের ভাতার টাকা পাননি পৌর এলাকার এক হাজার ৪০০ বয়স্ক পুরুষ-নারী, বিধবা ও প্রতিবন্ধী। উপকারভোগীরা জানান, কৃষি ব্যাংক ও উপজেলা সমাজসেবা বিভাগের ঠেলাঠেলিতে তাঁরা ভাতার টাকা পাচ্ছেন না।

একটি সূত্র জানায়, উপকারভোগীদের ভাতার টাকা বিতরণ করার জন্য সমাজসেবা কার্যালয় থেকে ব্যাংকে চিঠি পাঠানো হয়ে থাকে। গতকাল রবিবার কৃষি ব্যাংক নান্দাইল শাখায় ভাতার টাকা তুলতে আসেন প্রায় ২০ জনের মতো কার্ডধারী। টাকা না পেয়ে ফিরে যাওয়ার সময় তাঁদের কাছ থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

ব্যাংকে খোঁজ নিতে আসা নান্দাইল পৌর এলাকার চণ্ডীপাশা মহল্লার মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে মোশারফ হোসেন জানান, তাঁরা জানতে পেরেছেন ব্যাংকে টাকা থাকলেও সমাজসেবা কার্যালয় ও কৃষি ব্যাংকের ঠেলাঠেলিতে টাকা পাচ্ছেন না কার্ডধারীরা। মোশারফ বলেন, ‘বাবা তো টাকা না পেয়ে মারাই গেলেন। এখন টাকা পেয়ে আর কি হবে? এর বিচার কে করবে?’ খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত দুই মাসে পৌরসভার দশালিয়া গ্রামের গিয়াস উদ্দিন (৬৫), সাহেদ আলী (৭০), আব্দুল জব্বার (৬৫), হাবিবুর রহমান (৭০) ও চণ্ডীপাশা মহল্লার আফছার উদ্দিন (৭০) মারা গেছেন, যাঁরা বয়স্ক ভাতার নভেম্বরের কিস্তির টাকা পাননি।

সমাজসেবা কার্যালয় থেকে জানা যায়, নান্দাইল পৌরসভার প্রায় এক হাজার বয়স্ক, ২৩০ জন বিধবা ও ২১৫ জন প্রতিবন্ধী রয়েছেন। তিন মাসে তাঁদের বরাদ্দ টাকা এক লাখ ৮৪ হাজার। প্রতি তিন মাস পর পর কার্ডধারীরা তাঁদের ভাতার টাকা স্থানীয় কৃষি ব্যাংক থেকে উত্তোলন করেন। টাকার জন্য গতকাল ব্যাংকে আসা লোকজন জানান, ব্যাংক থেকে তাঁদের জানানো হয় টাকা বিতরণের চিঠি আসেনি। কৃষি ব্যাংকের ব্যবস্থাপক মো. শামসুল ইসলাম বলেন, তিনি সমাজসেবা কার্যালয় থেকে চিঠি পাননি।

সাত মাসের বয়স্ক ভাতার টাকা বকেয়া থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. ইনসান আলী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘টাকা জমা থাকলেও তারা (ব্যাংক) দিচ্ছে না কেন? এটা তারাই ভালো বলতে পারবে।’

মন্তব্য