kalerkantho


সীতাকুণ্ডে এক রাতে তিন ঘরে ডাকাতি

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে এক রাতে শিক্ষক, পুলিশের ঘরসহ তিন ঘরে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে স্বর্ণালংকার, টাকা, মোবাইল ফোন লুট করে একজনকে কুপিয়ে জখম করেছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নের মির্জানগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার গভীর রাত ৩টার দিকে উপজেলার বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নের মির্জানগর গ্রামের এমদাদ ভূঁইয়ার বাড়িতে ডাকাতদল প্রবেশ করে। পরে তারা মোহাম্মদ নাছির, বদরুদ্দোজা ও মাস্টার তৌহিদের বসতঘরে প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে মূল্যবান সরঞ্জাম, টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে।

মোহাম্মদ নাছির সাংবাদিকদের বলেন, ১৮ থেকে ২০ জনের ডাকাতদলটি ভূঁইয়াবাড়ি ঘিরে ফেলে। ডাকাতদলের ৮-১০ সদস্য প্রথমে পুলিশ কনস্টেবল নাজমুল হোসেনের বসতঘরের গ্রিল কেটে ভেতরে প্রবেশ করে। পরে তারা অস্ত্রের মুখে তাঁর মা-বাবাকে জিম্মি করে লুট করতে থাকে। এ সময় নাজমুল ডাকাতদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে তাঁকে ও তাঁর স্ত্রীকে একটি কক্ষে বেঁধে রাখে। এ

 সময় ওই বাড়িতে বেড়াতে আসা নাজমুলের ভগ্নিপতি মোস্তফা পুলিশের ৯৯৯ নম্বরে কল করে সহযোগিতা চান। পুলিশকে ফোন করার দৃশ্য ডাকাতরা দেখে ফেললে তাঁর মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাঁকে জখম করে। এরপর ডাকাতদলের সদস্যরা স্কুলশিক্ষক তৌহিদুল আনোয়ারের ঘরে প্রবেশ করে মালামাল লুটে নেয়।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার পরিদর্শক জাব্বারুল ইসলাম বলেন, ডাকাতির ঘটনা ঘটলেও ভুক্তভোগীরা এখনো অভিযোগ করেনি। তবু ডাকাতদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু হয়েছে।



মন্তব্য