kalerkantho


টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ও টেকনাফ প্রতিনিধি   

২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



কক্সবাজারের টেকনাফে বিজিবি-পুলিশের যৌথ অভিযানকালে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মোস্তাক আহমদ ওরফে মুছু নামের এক যুবক নিহত হয়েছে। গতকাল রবিবার ভোরের এ ঘটনায় নিহত মুছু টেকনাফ পৌরসভার উত্তর জালিয়াপাড়ার মৃত জাকির হোসেনের ছেলে। বিজিবির ভাষ্য, মোস্তাক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত শীর্ষ ইয়াবা কারবারি।

সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় ইয়াবাসহ মোস্তাক আহমদ ওরফে মুছুকে আটক করে বিজিবি। জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজের কাছে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা মজুদ থাকার তথ্য দেয়। এই তথ্যের ভিত্তিতে রাতে বিজিবির নায়েক মোহাম্মদ হাবিল উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি টহলদল এবং টেকনাফ থানা পুলিশের একটি দল মুছুকে নিয়ে উত্তর জালিয়াপাড়া এলাকায় অভিযানে যায়। সেখানে মোস্তাকের লোকজন বিজিবি-পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে আত্মরক্ষার্থে বিজিবি-পুলিশ পাল্টা গুলি চালায়। পরে মাদক কারবারিরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মোস্তাককে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

টেকনাফের ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ আছাদুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ‘বিজিবি-পুলিশের অভিযানে এক শীর্ষ ইয়াবা কারবারি নিহত হয়েছে।’ এদিকে টেকনাফ সীমান্তে গত দুই সপ্তাহ ধরে ইয়াবা গডফাদারদের আত্মসমর্পণের প্রক্রিয়া চলছে। পুলিশ তালিকাভুক্ত ইয়াবা গডফাদারদের আত্মসমর্পণের জন্য পুলিশ হেফাজতে নিয়ে যাচ্ছে। এমন সময়ে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মোস্তাক নিহত হওয়ার খবরে এলাকায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। একাধিক সূত্রের দাবি, মুছু পুলিশের সোর্স হিসেবে কাজ করত। এরই সূত্রে যেকোনো সময় ইয়াবার বড় চালান আটক হলে মাদকের গডফাদাররা মুছুকে দোষারোপ করত।



মন্তব্য