kalerkantho


ফরিদপুরে এলজিআরডি মন্ত্রী

কামাল ইউসুফকে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ফরিদপুর-৩ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও এলজিআরডি মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বিএনপি নেতা চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফের নির্দেশে তাঁর সন্ত্রাসীরা গত মঙ্গলবার ফরিদপুরের এক আওয়ামী লীগ নেতাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। তিনি তাঁর পুরনো অভ্যাস পরিবর্তন করতে পারেননি। তবে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সন্ত্রাসীদের গডফাদার কামাল ইউসুফকে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হবে—যাতে এ দেশে আর কোনোদিন সন্ত্রাস ও হত্যার রাজত্ব কায়েম করতে না পারেন।

গতকাল শনিবার দুপুরে ফরিদপুর শহরের শোভারাম এলাকার খান-এ খোদা বুনিয়াদি স্কুল মাঠে আয়োজিত নির্বাচনী সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন স্থনীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী (এলজিআরডি) ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। এসব সন্ত্রাসীরা হত্যা, খুন ও রাহাজানি করে মানুষের জীবন অতিষ্ঠ করে তুলেছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত ১০ বছরে আওয়ামী লীগের শাসনামলে দেশ সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকমুক্ত হয়ে উন্নয়নের মহাযাত্রা শুরু করেছে।’

সভায় কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের সহসভাপতি আরিফুর রহমান দোলন বলেন, ‘ওয়ান ইলেভেনের সময় বিএনপির নেতৃত্বে থেকে খালেদা জিয়াকে অপসারিত করার ষড়যন্ত্রের কুশীলবদের অন্যতম দোসর ছিলেন চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ। তিনি ছিলেন সংস্কারপন্থী। তাঁকে কী করে সাধারণ জনগণ বিশ্বাস করবেন? সামনের নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে কামাল ইউসুফদের সব ষড়যন্ত্রের অবসান করা হবে।’

স্থানীয় নেতা নূরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার নাজমুল ইসলাম লেভী, পৌর মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু, চৌধুরী বরকত ইবনে সালাম, আক্কাস হোসেন প্রমুখ।

 



মন্তব্য