kalerkantho


ফেনীতে ওবায়দুল কাদের

ড. কামাল নষ্ট রাজনীতির প্রবক্তা

ফেনী প্রতিনিধি   

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বেপরোয়া ড্রাইভারের মতো ড. কামাল বেপরোয়া আচরণ শুরু করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গতকাল শনিবার দুপুরে ঢাকা থেকে নিজ নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালী যাওয়ার পথে ফেনীর দাগনভূঞায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, সারা দেশে নৌকার পক্ষে গণজোয়ার দেখে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বেসামাল হয়ে পড়েছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “সাংবাদিকদের ‘খামোশ’ বলে যে অপমান করেছেন ড. কামাল, এভাবে পুরনো পাকিস্তানি ভাষা ব্যবহার করে তিনি তাঁর স্বরূপ ঢাকতে পারেননি। যিনি নীতি-নৈতিকতার কথা বলেন, নষ্ট রাজনীতির কথা বলেন, গতকাল তিনি প্রমাণ করেছেন তিনিই বাংলাদেশের নষ্ট রাজনীতির প্রবক্তা। ড. কামাল প্রমাণ করলেন, মানুষের শক্তি যত কমে আসে, তার মুখের বিষ তত উগ্র হয়ে যায়। তারা দুর্বল হয়ে পড়েছে। সে জন্য তাদের মুখের বিষ তীব্র হয়ে পড়েছে।”

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, মির্জা ফখরুল বা বিএনপির সঙ্গে শতকরা ১০ জন লোকও নেই। আওয়ামী লীগের সঙ্গে ৯০ শতাংশ লোক রয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির জন্য বিএনপি নিজেরাই দায়ী।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, দেশে আইন-শৃঙ্খলা অবনতির জন্য একমাত্র ঐক্যফ্রন্টই দায়ী। তারা পল্টনে পুলিশের ওপর হামলা করে এ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের উদ্বোধন করেছে। তারা নিজেরা নিজেদের সঙ্গে গণ্ডগোল করে নিউজ তৈরি করতে চাইছে। নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে বিএনপির অভিযোগের ব্যাপারে তিনি বলেন, এসব অভিযোগ অসহায়ের সংলাপ।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, দাগনভূঞা থেকে চৌধুরীহাট পর্যন্ত রাস্তা প্রশস্তকরণের কাজটি দীর্ঘদিন পরে হলেও সুগম হয়েছে। এরই মধ্যে রাস্তা প্রশস্তকরণে জায়গার মালিকদের ক্ষতিপূরণ বাবদ ১০ কোটি টাকা দিয়েছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন দাগনভূঞা উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের সভাপতি দিদারুল কবির রতনসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী।

পরে সন্ধ্যায় ওবায়দুল কাদের নিজ নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালী-৫-এর কবিরহাটের নবগ্রাম বাজারে নির্বাচনী পথসভায় বলেন, জনসমর্থন নেই বলেই বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট ভোটের মাঠে যেতে পারছে না। তিনি তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সম্পর্কে বলেন, ‘মওদুদ সাহেব বলেছিলেন এক মাসের মধ্যে রাজনীতির চেহারা বদলে যাবে। কই, কোনো চেহারা তো বদল হলো না।’

 



মন্তব্য