kalerkantho


মণিরামপুরে পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতির অভিযোগ

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



যশোরের মণিরামপুরে পুলিশের পরিচয়ে তিনটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ডাকাতি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার রাত দেড়টার দিকে উপজেলার সোহবার মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। অভিযোগ অনুযায়ী, ওই বাজারের দুই নৈশপ্রহরীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ডাকাতরা প্রায় সাড়ে পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে গেছে।

নৈশপ্রহরী নূর হোসেন মানিকের ভাষ্য, ‘আমি ও আশরাফুল নামের একজন রাতে মোড়ে পাহারা দিই। শনিবার রাত দেড়টার দিকে ১০-১২ জন এসে নিজেদের পুলিশের লোক বলে পরিচয় দেয়। তাদের কাছে হাতকড়া ও অস্ত্র ছিল। তারা স্থানীয় কাশিমনগর ইউনিয়নের রোস্তমকে খুঁজছে বলে জানায়। এরপর তারা আমাদের রোস্তমের বাড়ি দেখিয়ে দিতে বলে। খানিকটা পথ তাদের সঙ্গে যাওয়ার পর তারা আমাদের গুলি করার হুমকি দেয়। তারা আমাদের দুজনকে ফাঁকা মাঠে নিয়ে মুখ ও হাত-পা বেঁধে ফেলে। আমাদের মোবাইলও নিয়ে নেয়। ওরা চলে গেলে আমরা কোনোভাবে ছাড়া পেয়ে চিৎকার দিই। পরে এসে দেখি মোড়ে ইসমাইল, কামাল ও জাহিদের দোকানের তালা ভাঙা।’

ভুক্তভোগী দোকান মালিকদের একজন ইসমাইল হোসেন। এই মুদি দোকানি বলেন, ‘শনিবার আমার দোকানে হালখাতা ছিল। হালখাতায় দুই লাখ টাকা উঠেছে। রাতে বাড়ি যাওয়ার সময় দোকানে টাকা রেখে যাই। ডাকাতরা দোকানের শাটারের তালা ও ক্যাশ বাক্স ভেঙে সেই টাকা নিয়ে গেছে।’

ব্যবসায়ী কামাল হোসেন দাবি করেন, ‘আমার ক্যাশে সোয়া তিন লাখ টাকা ছিল। সব নিয়ে গেছে।’ আর জাহিদ স্টোর থেকে খোয়া গেছে ১৫ হাজার টাকা।

মণিরামপুরে খেদাপাড়া ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই আইনুদ্দিন বিশ্বাস বলেন, ‘প্রহরীরা ডাকাতদের কাছে হাতকড়া থাকার কথা বলেছে।’



মন্তব্য