kalerkantho


ইমরান, মেয়র-চেয়ারম্যানসহ ভোটে যোগ্য ১১ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



হাইকোর্টে রিট করে প্রার্থিতা ফেরত পেয়েছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারসহ ১১ জন। অন্যদের মধ্যে আছেন পাঁচ পৌর মেয়র ও দুই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। গতকাল হাইকোর্ট পৃথক আদেশে এই ১১ জনের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দেন। ইসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এসব আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে।

এদিকে জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, বিএনপির সাবেক প্রতিমন্ত্রী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, হিরো আলমসহ আরো প্রায় এক ডজন ব্যক্তি হাইকোর্টে রিট আবেদন করেছেন। কারো কারো আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে। তাঁদের বিষয়ে আজ সোমবার সিদ্ধান্ত দেবেন হাইকোর্ট।

ইমরান এইচ সরকার : কুড়িগ্রাম-৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইমরান এইচ সরকার মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। কিন্তু রিটার্নিং অফিসার তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। নির্বাচনী এলাকার মোট ভোটারের ন্যূনতম এক শতাংশ ভোটারের সমর্থন না থাকায় তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। এর বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করলেও তাঁর প্রার্থিতা বাতিল করা হয়। এরপর গতকাল হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন তিনি। বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ রিট আবেদন শোনার পর ইসির সিদ্ধান্ত স্থগিত করে ইমরানের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দেন।

বিএনপির পাঁচ মেয়রের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ : নীলফামারী-৪ আসনের আমজাদ হোসেন সরকার, নীলফামারী-৩ আসনের ফাহমিদ ফয়সাল চৌধুরী, দিনাজপুর-৩ আসনের সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, নওগাঁ-৫ নাজমুল হক ও পঞ্চগড়-১ আসনের তৌহিদুল ইসলামের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল পৃথক রিট আবেদনের শুনানি শেষে ইসির আদেশ স্থগিত করে তাঁদের মনোনয়পত্র গ্রহণের নির্দেশ দেন ও রুল জারি করেন। এই পাঁচজন নিজ নিজ এলাকার পৌর মেয়র পদে বহাল রয়েছেন এবং সবাই বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশী। তাঁদের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন নিজ নিজ এলাকার রিটার্নিং অফিসার।

উপজেলা চেয়ারম্যান : বগুড়া-৭ আসনে বিএনপি থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী শাহজাদপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বাদল সরকার ও বগুড়া-৩ আসনে আরেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মুহিত তালুকদারের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আরেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমানের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া টাঙ্গাইল-৮ আসনে কাজী আশরাফ সিদ্দিকী ও নওগাঁ-৪ আসনে মো. আফজাল হোসেনেরও মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর হাইকোর্ট বেঞ্চ পৃথক আদেশে তাঁদের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন। এ ছাড়া ফারমার্স ব্যাংকের আবেদনে ময়মনসিংহ-১ আসনের প্রার্থী আলী আসগরের মনোনয়নপত্র স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।



মন্তব্য