kalerkantho


মানববন্ধনে টিআইবি

দুদকের ভূমিকায় নিরপেক্ষতা খুঁজে পাওয়া দুরূহ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



দুদকের ভূমিকায় নিরপেক্ষতা খুঁজে পাওয়া দুরূহ

আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস উপলক্ষে গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় মানববন্ধন করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ। ছবি : কালের কণ্ঠ

সরকারবিরোধী রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ও সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিদের দুর্নীতির ক্ষেত্রে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। সংস্থাটি বলেছে, অর্পিত দায়িত্ব পালনে দুদক সাম্প্রতিক সময়ে লক্ষণীয়ভাবে সচেষ্ট। তবে উল্লিখিত ক্ষেত্রগুলোতে দুদক নিরপেক্ষতা বজায় রেখেছে এরূপ দৃষ্টান্ত খুঁজে পাওয়া দুরূহ।

আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস-২০১৮ উপলক্ষে গতকাল রবিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) চত্বরে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে প্রকাশিত ধারণাপত্রে এই প্রশ্ন উত্থাপন করে টিআইবি। এ সময় দুর্নীতি প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে সংশ্লিষ্ট অংশীজনের বিবেচনার জন্য দশটি সুপারিশ তুলে ধরেন টিআইবির প্রধান নির্বাহী ড. ইফতেখারুজ্জামান।

টিআইবির সুপারিশগুলো হলো—গণতন্ত্র ও সুশাসনের বিদ্যমান ঘাটতি পূরণে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলোর সুনির্দিষ্ট অঙ্গীকার থাকা এবং তা কিভাবে বাস্তবায়িত হবে তার সুনির্দিষ্ট রূপরেখা জানানো; দলগুলোকে জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশলপত্র অনুসরণপূর্বক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করে তা বাস্তবায়ন ও প্রতিবছর অগ্রগতি পর্যালোচনা করা; নির্বাচনে কালো টাকার প্রভাব কমাতে প্রার্থীদের ব্যয়ের হিসাব পর্যবেক্ষণ করতে আসনভিত্তিক কমিটি গঠন করা; বাক্স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও জাতীয় সম্প্রচার আইনের বিতর্কিত ধারা বাতিল করা এবং সরকারি খাতে অনিয়ম-দুর্নীতি প্রতিরোধে সরকারি চাকরি আইন-২০১৮-এর বিতর্কিত ধারাগুলো বাতিল করা।



মন্তব্য