kalerkantho


চারুকলায় তরুণদের যৌথ চিত্র প্রদর্শনী শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



চারুকলায় তরুণদের যৌথ চিত্র প্রদর্শনী শুরু

তরুণ শিল্পীদের নিরীক্ষামূলক চিত্রকর্ম নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের জয়নুল গ্যালারিতে শুরু হয়েছে যৌথ চিত্রকর্ম প্রদর্শনী। চিত্রকর্মে উঠে এসেছে যাপিত জীবনের নানা বিষয়। নিরীক্ষাপ্রবণ দৃষ্টিতে তরুণরা যেমন দেখেছেন সমাজ ও চারপাশের নানা নান্দনিক দৃশ্য, তেমনি অবলোকন করেছেন সমাজ ও রাষ্ট্রের অসংগতি।

তরুণদের মোট ৪০টি চিত্রকর্ম নিয়ে আয়োজিত প্রদর্শনীতে উপস্থাপিত হয়েছে ২৩তম বার্জার তরুণ শিল্পী চিত্রকর্ম প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ছয় তরুণের ছয়টি চিত্রকর্ম। গতকাল মঙ্গলবার বার্জার পেইন্টসের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রূপালী চৌধুরী প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিল্পী মনিরুল ইসলাম, সৈয়দ আবুল বারক আলভী। উপস্থিত ছিলেন প্রতিযোগিতার জুরি বোর্ডের চেয়ারম্যান শিল্পী নিসার হোসেন। আলোচিত এ প্রদর্শনী চলবে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত। খোলা থাকবে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত।

২৩তম বার্জার তরুণ শিল্পী চিত্রকর্ম প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিল্পীরা হলেন—চিত্রম সেন অনিক (প্রথম), তরিকুল ইসলাম হিরক (দ্বিতীয়), নবরাজ রায় (তৃতীয়), জান্নাতুল নেসা টুম্পা (চতুর্থ), আসমা চৌধুরী (পঞ্চম) এবং সুবর্ণা মোর্শেদা (ষষ্ঠ)।

প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে রূপালী চৌধুরী বলেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নই একমাত্র উন্নয়ন নয়। তার সঙ্গে মানুষের চিন্তাচেতনার উন্নয়নও জরুরি। তার জন্য শিল্প-সাহিত্য-সংগীতসহ সৃজনশীল প্রতিভার বিকাশ করতে হবে। শিল্পী-সাহিত্যিকদের সহযোগিতা করতে হবে। কেননা শিল্পী-সাহিত্যিকরাই তৈরি করেন একটি জাতির রুচি ও মননবোধ।

আরণ্যকের নাটক দি জুবলী হোটেল মঞ্চস্থ

নারীর প্রতি সহিংসতা, সংঘ্যালঘু নির্যাতন আর আক্রান্ত মুক্তচিন্তা—সমাজ বাস্তবতার এমন প্রেক্ষাপটে নির্মিত নাটক ‘দি জুবলী হোটেল’। প্রগতির বিরুদ্ধে অশুভ শক্তির উন্মাদনার চিত্র তুলে ধরা নাটকটি মঞ্চস্থ হলো গতকাল সন্ধ্যায়। নাট্যদল আরণ্যকের ৫৭তম প্রযোজনাটির প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার প্রধান মিনায়তনে। রচনার পাশাপাশি নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন মান্নান হীরা। প্রযোজনাটির বিভিন্ন চরিত্রে রূপ দিয়েছেন—তমালিকা কর্মকার, মান্নান হীরা, আরিফ হোসেন আপেল, সাজ্জাদ সাজু প্রমুখ। নাটকটির সহকারী নির্দেশক কামরুল হাসান। মঞ্চ ও আলোক পরিকল্পনা করেছেন ফয়েজ জহির। সংগীত পরিকল্পনা করেছেন সুজেয় শ্যাম। প্রিয়াংকা প্যারিসের কোরিওগ্রাফিতে পোশাক পরিকল্পনা করেছেন সুরাইয়া শান্তা।



মন্তব্য