kalerkantho

বদির স্ত্রী মনোনয়ন পাচ্ছেন?

প্রতিবাদ জানাতে গণভবনে ৮ মনোনয়নপ্রত্যাশী

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ও টেকনাফ প্রতিনিধি   

২০ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজারের বহুল আলোচিত-সমালোচিত সংসদ সদস্য (এমপি) আবদুর রহমান বদির স্ত্রী শাহীন চৌধুরীকে প্রার্থী না করার অনুরোধ জানিয়েছেন কক্সবাজার-৪ আসনের আটজন মনোনয়নপ্রত্যাশী। আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন ঘোষণা না হলেও উখিয়া ও টেকনাফ এলাকায় গুঞ্জন ছড়িয়েছে যে বদির স্ত্রীকেই প্রার্থী করছে আওয়ামী লীগ। এমপি বদির স্ত্রীকে সংবর্ধনা দিতে টেকনাফ সীমান্তে প্রস্তুতিও চলছে।

প্রতিবাদ জানাতে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ছুটে যান আটজন মনোনয়নপ্রত্যাশী। তাঁরা প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাদক কারবারির তালিকার শীর্ষে এমপি বদি। দুর্নীতি দমন কমিশনের তথ্য গোপন মামলায়ও তিন বছরের দণ্ডিত বদি। এমন একজন ব্যক্তির স্ত্রীকে দলীয় মনোনয়ন না দিয়ে স্থানীয় আওয়ামী পরিবারের একজন ত্যাগী সদস্যকে সুযোগটি দেওয়া হোক।

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ আসনের সাবেক দলীয় এমপি এবং টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী গতকাল রাতে কালের কণ্ঠকে বলেন, তাঁরা নির্ভরযোগ্য সূত্রে এমপি বদির স্ত্রীকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার কথা শুনে গণভবনে ছুটে যান। মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে বিনয়ের সঙ্গে বলি, আপনি মাদকের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করে এমপি বদিকে মনোনয়ন দিচ্ছেন না, এ জন্য ধন্যবাদ জানাই। কিন্তু এমপি বদির স্ত্রীকে মনোনয়ন দেওয়া মানেই হচ্ছে মাদকের এপিঠ-ওপিঠ কাজ করা।’

অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী বলেন, প্রধানমন্ত্রী এ কথা শুনে পাল্টা প্রশ্ন করে জানতে চান তাঁর (অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী) আমলের কথা। তিনি (অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী) প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন, তিনি যখন সীমান্তের আসনটিতে এমপি ছিলেন তখন ইয়াবা ছিল না এবং ফেনসিডিলও পাচার হতো না। প্রধানমন্ত্রী এরপর এমপি বদির স্ত্রী শাহীন চৌধুরীকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার বিষয় নিয়ে আর কোনো মন্তব্য করেননি বলেও জানান মোহাম্মদ আলী।

আরো যে সাতজন মনোনয়নপ্রত্যাশী গণভবনে গিয়েছিলেন তাঁরা হলেন টেকনাফের নুরুল বশর, মোহাম্মদ শফিক মিয়া, সোহেল আহমদ বাহাদুর ও উখিয়ার বাসিন্দা এবং এমপি বদির শ্যালক জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, মোহাম্মদ শাহ আলম, সাধনা দাশ গুপ্তা ও আলী আহমদ।

এদিকে টেকনাফের মাইক্রোবাসচালক মোহাম্মদ ইয়াকুব কালের কণ্ঠকে বলেন, তাঁকে এরই মধ্যে এমপি বদির পক্ষে বলে রাখা হয়েছে বিপুলসংখ্যক যানবাহন প্রস্তুত রাখতে। এসব যানবাহন নিয়ে টেকনাফ সীমান্ত থেকে কক্সবাজার বিমানবন্দরে গিয়ে সংবর্ধনা জানানো হবে।

মন্তব্য