kalerkantho


বিচারকদের প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে আইনমন্ত্রী

পুঞ্জীভূত মামলার জট নিরসনে কাজ করছি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বিগত ৩০ বছরের পুঞ্জীভূত ৩৪ লাখ মামলার জট নিরসনে আইন মন্ত্রণালয় কাজ করছে। গতকাল রবিবার রাজধানীর বিচার প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে জেলা জজদের এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক এ কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, মামলার সংখ্যা যখন এক লাখ, দুই লাখ ছিল, তখন যদি কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হতো তাহলে হয়তো এখন ৩৪ লাখ মামলার জটের দায়ভার নিতে হতো না। প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক বিচারপতি মুসা খালেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন আইনসচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক ও অন্যান্য বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তারা।

আনিসুল হক বলেন, ‘গত ৩০ বছরের পুঞ্জীভূত মামলার জট নিয়ে এখন আপনারা লড়াই করছেন। প্রতিনিয়ত শুনতে হচ্ছে ৩৪ লাখ মামলার জটের কথা। এর পরও বিচারপ্রার্থী জনগণকে বিচার দিতে হবে একই সঙ্গে মামলার জটও কমাতে হবে। সে ক্ষেত্রে সরকার যে পদক্ষেপ নিয়েছে তার মধ্যে একটি হলো মামলা তাড়াতাড়ি শেষ করার ব্যবস্থা। এর পাশাপাশি দ্রুত কিভাবে মামলা শেষ করা যায় তার জন্য বিকল্প পথও খুঁজছি।’

জমিসংক্রান্ত দেওয়ানি মামলাকে বেগুনক্ষেতের সঙ্গে তুলনা করে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘একবার লাগালে দীর্ঘ সময় ধরে ফল আসতে থাকবে। আমরা এই সংস্কৃতির পরিবর্তন করতে চাই। জনগণকে বিচার দিতে হবে। বিচার দিতে যদি আমরা দেরি করি তাহলে সেটা হবে বিচার বিভাগের ব্যর্থতা। এর ফলে স্ট্রিট জাস্টিস উইল প্রিভেন্ট (প্রাধান্য পাবে)।’



মন্তব্য