kalerkantho


নয়াপল্টনে সহিংসতার কারণ খতিয়ে দেখবে ইসি

বিশেষ প্রতিনিধি   

১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘিত হয়নি বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি বলেছেন, ‘নয়াপল্টনে যে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে, সেটা কেন ঘটল তা আমরা খতিয়ে দেখব।’

গতকাল বুধবার রাতে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। সচিব বলেন, ‘উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের বিষয়টি স্বাভাবিক, এটাকে আচরণবিধি লঙ্ঘন বলা যাবে না। আওয়ামী লীগের ক্ষেত্রেও উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের চিত্র আমরা দেখেছি।’

নয়াপল্টনের ঘটনায় নির্বাচন কমিশনকে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। আচরণবিধি লঙ্ঘন না হলে ইসি কী ধরনের ব্যবস্থা নেবে—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল ইসির সঙ্গে বৈঠক করেছে। তারা ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে। আমরা পুলিশের কাছে জানতে চাইব, কেন এই সহিংসতা হয়েছে।’

রাষ্ট্রীয় প্রটোকল ব্যবহার করে প্রধানমন্ত্রী তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন—এটা আচরণবিধির লঙ্ঘন কি না জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, ‘আমরা দেখব এটা আচরণবিধির লঙ্ঘন কি না।’ অন্য এক প্রশ্নের জবাবে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণের পরে এবং বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু হলে শোডাউন না করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, বিষয়টি এমন নয়। দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীরা উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করবে, এটা স্বাভাবিক বিষয়। আমরা চিঠি দিয়েছি যেন ভবিষ্যতে তারা যখন রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়ন ফরম জমা দেবে, সেখানে যেন বড় ধরনের শোডাউন না হয়।’

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় যে চিঠি দিয়েছিল তাতে বলা হয়, ‘বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রকাশিত প্রতিবেদন হতে জানা যায় যে, নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের দলীয় কার্যালয়ে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র গ্রহণ বা জমাদানের সময় মোটরসাইকেল ও অন্যান্য যানবাহন সহকারে মিছিল এবং শোডাউন করা হচ্ছে, যা সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থী আচরণ বিধিমালা-২০০৮-এর ৮ বিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।’ নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান স্বাক্ষরিত এ চিঠিতে বলা হয়, কোনো নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল, দলের প্রার্থী বা স্বতন্ত্র প্রার্থী এবং তাঁদের পক্ষে এ ধরনের মিছিল শোডাউন করা যাবে না।



মন্তব্য