kalerkantho


আজ বসছে লোকসংগীত উৎসবের মহা আসর

নওশাদ জামিল   

১৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



আজ বসছে লোকসংগীত উৎসবের মহা আসর

গানের দেশ, সুরের দেশ বাংলাদেশ। নদীমাতৃক এ দেশে জলে-স্থলে ভেসে বেড়ায় ভাটিয়ালি, ভাওয়াইয়া, পল্লীগীতি, জারি-সারি গান। কান পাতলেই শোনা যায় লালন, হাসন, জালাল, শাহ আব্দুল করিমের বাউল-মরমি গানের বাণী ও সুর। মাটিবর্তী এসব গানে আন্দোলিত হই আমরা সবাই। বাংলার মাটি, মানুষ আর তার অন্তরের কথা নিয়ে যে গান, যে সংস্কৃতি—আমরা সেই সংস্কৃতির কাছেই ছুটে যাই। আর এই সংস্কৃতির অন্যতম উপাদান লোকগান। শুধু গ্রামাঞ্চল নয়, লোকগানের ঢেউ আন্দোলিত করেছে নগরবাসীকেও। বাঙালির আপন সংস্কৃতির শিকড় সন্ধানে এবং বিশ্বসংস্কৃতির সঙ্গে নিজ সংস্কৃতির মেলবন্ধনে কয়েক বছর ধরে রাজধানীতে বসছে আন্তর্জাতিক লোকসংগীতের আসর। এরই ধারাবাহিকতায় উৎসবের চতুর্থ আসরের পর্দা উঠছে আজ বৃহস্পতিবার।

ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসবের পোশাকি নাম ‘ফোক ফেস্ট’। জমকালো এ উৎসব শুধু দেশেরই নয়, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের লোকগানের এক মিলনমেলা হয়ে উঠেছে। আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে শুরু হয়ে এ উৎসব চলবে শনিবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হয়ে এ উৎসব চলবে রাত ১২টা পর্যন্ত। লোকসংগীত নিয়ে এ আসরে বাংলাদেশসহ সাতটি দেশের দেড় শতাধিক শিল্পী অংশ নিচ্ছেন। সান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এবং সান কমিউনিকেশনের আয়োজনে মেরিল নিবেদিত এ আয়োজনে সহযোগিতা করছে ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, গ্রামীণফোন ও রাঁধুনী।

আয়োজকরা বলেন, নতুন প্রজন্মকে জাতির ইতিহাস ও সংস্কৃতি সম্পর্কে পরিচিত করা এবং শিকড়ের সন্ধান দেওয়ার জন্যই এ আয়োজন। আমরা আশা করি, এর মধ্য দিয়ে আমাদের লোকসংগীতের অবারিত রত্নভাণ্ডার সম্পর্কে জানবে সারা বিশ্ব। পাশাপাশি সংগীতের এ সমৃদ্ধ ধারা আরো বিকশিত হবে।

এবারের উৎসবে বাংলাদেশের শিল্পীদের মধ্যে অংশ নেবে মমতাজ বেগম, বাউল আব্দুল হাই দেওয়ান, বাউল কবির শাহ, অর্ণব, নকশীকাঁথা, স্বরব্যঞ্জো ও ভাবনা নৃত্যদল। ভারত থেকে অংশ নিচ্ছেন ওয়াদালি ব্রাদার্স, রাঘু দীক্ষিত ও সত্যাকি ব্যানার্জি, পাকিস্তান থেকে শাফকাত আমানাত আলী, বাহরাইন থেকে মাজাজ, যুক্তরাষ্ট্র থেকে গ্র্যামি পুরস্কার বিজয়ী লস টেক্সমেনিয়াক্স, পোল্যান্ড থেকে দিকান্দা এবং স্পেন থেকে লাস মিগাস।

আজ সন্ধ্যা ৬টায় সামিনা হোসেন প্রিমার পরিচালনায় নৃত্যদল ভাবনার পরিবেশনার মধ্য দিয়ে শুরু হবে ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসবের চতুর্থ আসর। বাংলাদেশ থেকে প্রথম দিনে একমাত্র সংগীত পরিবেশনায় থাকছেন মাতাল কবি রাজ্জাক দেওয়ানের শিষ্য নারায়ণগঞ্জের আব্দুল হাই দেওয়ান। গুরুর কাছ থেকে পাওয়া হাফ মাতাল উপাধি নিয়ে গেয়ে চলেছেন অবিরাম। প্রথম দিনেই পোল্যান্ডের লোকগানের দল প্রথমবারের মতো পরিবেশনায় অংশ নেবে।

গতবার দর্শক-শ্রোতাদের হৃদয় জয় করেছিলেন নুরান সিস্টার্স। তাঁরা এবারের আসরে না থাকলেও আছেন ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যের ওয়াদালি ব্রাদার্স। ওস্তাদ পূরণচন্দ্র ওয়াদালি ও পেয়ারেলাল ওয়াদালি ভ্রাতৃদ্বয় ভারতের সুফিসংগীতের এক স্বনামধন্য নাম। তাঁরা বুল্লে শাহ, ফরিদ সাহেবজি, শাহ হুসেইনজির ভজন গেয়ে শ্রোতাদের মন জয় করেছেন। পেয়ারেলাল ওয়াদালি গত ৮ মার্চ মারা যাওয়ার পরও দলটির নাম পরিবর্তন করা হয়নি। তাঁর বদলে দলে যোগ দিয়েছেন পূরণচন্দ্র ওয়াদালির ছেলে লক্ষ্মীণদার ওয়াদালি। প্রথম দিন আরো সংগীত পরিবেশন করবেন ভারতের সত্যাকি ব্যানার্জি। ইউটিউবের কল্যাণে বাংলাদেশেও দারুণ জনপ্রিয় সত্যাকি। তাঁর পরিবেশনার মধ্য দিয়েই প্রথম দিনের আয়োজন শেষ হবে। উৎসবের দ্বিতীয় দিনে অংশ নেবেন ভারতের দ্য রঘু দীক্ষিত প্রজেক্ট, যুক্তরাষ্ট্রের লস টেক্সমেনিয়াক্স ও বাহরাইনের মাজাজ। বাংলাদেশ থেকে অংশ নেবেন স্বরব্যঞ্জো ও মমতাজ বেগম। তৃতীয় দিনে অংশ নেবে পাকিস্তানের শাফকাত আমানাত আলী, স্পেনের লাস মিগাস, বাংলাদেশের বাউল কবির শাহ, অর্ণব ও নকশীকাঁথা।

গত তিনবারের মতো এবারও বিনা মূল্যে এ উৎসবে যোগ দেওয়ার জন্য ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করেছে শ্রোতারা। উৎসবের বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাচ্ছে ফেসবুকে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোক ফেস্ট পেজে ও ওয়েবসাইটে (www.dhakainternationalfolkfest. com)।



মন্তব্য