kalerkantho


ঢাকা-টাঙ্গাইল পথে কমিউটার ট্রেনের যাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ঢাকা ও টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু (পূর্ব) রেলওয়ে স্টেশনের মধ্যে টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেন চলাচল গতকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে। বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে এ ট্রেনের চলাচল উদ্বোধন করেন রেলপথমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। রাত ৮টা ১৩ মিনিটে এই প্রতিবেদন লেখার সময় ট্রেনটি টাঙ্গাইল স্টেশনে পৌঁছে। টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেনটি ঢাকা থেকে ছেড়ে যাবে বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে এবং বঙ্গবন্ধু সেতু স্টেশনে (পূর্ব) পৌঁছবে রাত ৮টা ৩০ মিনিটে। সেখান থেকে সকাল ৬টায় ছেড়ে ঢাকায় পৌঁছবে সকাল ৮টা ৫০ মিনিটে। ট্রেনটি ১০টি কোচ নিয়ে চলাচল করবে। আগে এটি তুরাগ নামে ঢাকা-জয়দেবপুর পথে চলাচল করত।

এর আগে এ অঞ্চলে কমিউটার ট্রেন চালুর বিষয়ে টাঙ্গাইলবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। ঢাকার টাঙ্গাইল জেলা সমিতি, ঢাকার টাঙ্গাইল ফাউন্ডেশন, টাঙ্গাইল জেলা সাংবাদিক ফোরামসহ বিভিন্ন সংগঠন বিশেষ করে সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী, সাবেক মন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক এবং ঢাকায় বসবাসকারী বিশিষ্টজনরা এ বিষয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছিলেন। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণাও দিয়েছিলেন। গতকাল টাঙ্গাইলবাসীর দীর্ঘদিনের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের লোকজনের যাতায়াতের সুবিধার জন্য এলাকাবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা ও পঞ্চগড়ের মধ্যে সরাসরি ট্রেন চালানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামী শনিবার পঞ্চগড় থেকে ছেড়ে আসার মাধ্যমে ট্রেনটির চলাচল শুরু হবে।

বর্তমানে ঢাকা-দিনাজপুর পথে দ্রুতযান ও একতা ট্রেন চলাচল করে। দিনাজপুর-পঞ্চগড় পথের যাত্রীরা সরাসরি ঢাকায় আসার সুযোগ থেকে বঞ্চিত ছিল। দ্রুতযান ও একতা ট্রেনের সার্ভিস বর্ধিত হয়ে পঞ্চগড় থেকে ঢাকার মধ্যে চলাচল করবে। এ রুটে দুটি ট্রেন তিনটি রেক দ্বারা পরিচালিত হবে। ট্রেন দুটি পঞ্চগড়-দিনাজপুরের মধ্যে নতুন সময়সূচি অনুযায়ী এবং দিনাজপুর-ঢাকার মধ্যে পুরনো সময়সূচি অনুযায়ী চলাচল করবে।



মন্তব্য