kalerkantho


ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিট ভর্তি পরীক্ষা

অধিকতর তদন্তে ফের পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



অধিকতর তদন্তে ফের পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে যুব ঐক্যপ্রক্রিয়া মানববন্ধন করতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় অধিকতর তদন্তের জন্য ফের পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ আসার পর প্রাথমিকভাবে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটির সুপারিশ অনুযায়ীই ফের পাঁচ সদস্যের এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হলো।

গতকাল সোমবার এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রাব্বানী কালের কণ্ঠকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক নাসরীন আহমাদকে আহ্বায়ক ও প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রাব্বানীকে সদস্যসচিব করে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ইমদাদুল হক, সিন্ডিকেট সদস্য বাহালুল মজনুন চুন্নু ও জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক অসীম কুমার সরকার। দুই সপ্তাহের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। গত বছর প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ উঠলে তা খতিয়ে দেখতে এই পাঁচ সদস্য নিয়ে গঠিত কমিটিকেই সে সময় দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। অথচ এক বছর পেরিয়ে গেলেও তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন দিতে পারেনি। এ বছরও সেই একই সদস্যদের দায়িত্ব দেওয়া হলো।

তদন্তের বিষয়ে অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সত্য উদ্ঘাটন  করতে নিবিড় তদন্তে জন্য এই কমিটি করা হয়েছে। আমরা প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করতে কাজ করব। আমরা প্রশ্ন ফাঁসের মূল উৎপাটন করতে চাই।’

উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, কমিটিকে দুই সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছে। তবে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ভর্তির কার্যক্রম চলবে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিভিন্ন ফোরামে আলোচনার মাধ্যমে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।



মন্তব্য