kalerkantho


জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত

আনান কমিশনের সুপারিশেই রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



রোহিঙ্গা সংকটের টেকসই ও সম্মানজনক সমাধানের জন্য মিয়ানমারকে কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের তাগিদ দিয়েছেন মিয়ানমারবিষয়ক জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শ্রানার বার্গেনার। ১১ দিনের মিয়ানমার সফর শেষে গত শনিবার রাতে এক বিবৃতিতে তিনি ওই তাগিদ দেন। একই সঙ্গে তিনি মিয়ানমারে সামাজিক পুনর্মিলনের জন্য জবাবদিহি ও আলোচনার ওপর জোর দিয়েছেন।

জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন শ্রানার বার্গেনার মিয়ানমার সফরে স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চিসহ অন্যান্য বেসামরিক ও সামরিক নেতা, নৃগোষ্ঠীগুলোর সশস্ত্র সংগঠন, স্থানীয় ও ধর্মীয় নেতা, জাতিসংঘের সংস্থা ও কূটনৈতিক সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তিনি বারবার বলেছেন, ‘জাতীয় পুনর্মিলনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ দুটি উপায়ের একটি হলো জবাবদিহি, অপরটি অংশগ্রহণমূলক আলোচনা।’ তিনি আরো বলেন, ‘জবাবদিহির জন্য প্রথম উদ্যোগ হলো বিশ্বাসযোগ্য তথ্যানুসন্ধান।’

জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত রাখাইন রাজ্যের কিয়াউকতাও, বুথিডং, মংডু ও সিতুয়েতে কয়েকটি অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের শিবির (আইডিপি ক্যাম্প) ও স্থানান্তর এলাকা পরিদর্শন করেন। তাঁর গত জুন মাসের সফরের পর পরিস্থিতি কতটা উন্নতি হয়েছে তা যাচাই করাই ছিল এ পরিদর্শনের লক্ষ্য। জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি) ও জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনারের (ইউএনএইচসিআর) সঙ্গে মিয়ানমারের সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে তিনি উত্তর ও কেন্দ্রীয় রাখাইন রাজ্যজুড়ে পূর্ণ প্রবেশাধিকার ও সমীক্ষা চালানোর ওপর জোর দেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আইডিপি শিবিরগুলো বন্ধ করে দেওয়াই যথেষ্ট নয়। আইডিপিদের (অভ্যন্তরীণভাবে বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের) পূর্ণ মানবাধিকারের প্রতি সম্মান জানানো উচিত। তাদের শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা থেকে চলাফেরার পূর্ণ স্বাধীনতা দিতে হবে।’



মন্তব্য