kalerkantho


‘এই জীবনোত প্রথম ভোট দিনু বাহে’

নীলফামারী প্রতিনিধি   

২২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



‘এই জীবনোত প্রথমবার ভোট দিনু বাহে। হামার বাড়ির সাতজন প্রথমবার ভোট দিবার পারিল।’ গতকাল রবিবার ৫০ বছর বয়সে নীলফামারীর ডিমলার টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট দিয়ে কথাগুলো বলেন বিলুপ্ত ছিটমহল নগর জিগাবাড়ি গ্রামের ভোটার খতেজা বেগম। তিনি বলেন, ‘হামেরা ছিটমহলের মানইনষি আছিনো। এত দিন হামার ভোট দিবার পারমিশন ছিল না।  তিন বছর আগোত সরকার হামাক নাগরিক বানাইল। তারপর থাকি ভোটন দিবার খুব আশা ছিল বাহে। দুই বছর আগোত একবার ভোট আসিবার চায়া বন্ধ হইল। মেলা দিন পর সেই আশা হামার পূরণ হইল।’

গতকাল রবিবার উপজেলার গয়াবাড়ি, টেপাখড়িবাড়ি ও খগাখড়িবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ইউনিয়ন তিনটির ২৭টি কেন্দ্রে (প্রতিটি ইউনিয়নের ৯টি করে) ভোট অনুষ্ঠিত হয়। এসব কেন্দ্রে এলাকার ভোটারসহ ভোট দেয় খতেজা বেগমের মতো বিলুপ্ত ছিটমহলের নতুন নাগরিকরা।

চার ছিটমহল বিলুপ্তির পর ইউনিয়ন তিনটিতে সীমানা জটিলতা দেখা দেয়। ২০১৬ সালে ওই তিন ইউপিতে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হলেও উচ্চ আদালতে মামলায় স্থগিত হয় সেই নির্বাচন। দীর্ঘ অপেক্ষার পর গত ২০ সেপ্টেম্বর নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব (চলতি দায়িত্ব) ফরহাদ আহাম্মদ খান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ইউনিয়ন পরিষদ তিনটির ফের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করেন।



মন্তব্য