kalerkantho


চরফ্যাশন

ফার্মেসিতে বিষপানের চিকিৎসা তরুণের মৃত্যু, মামলা

চরফ্যাশন (ভোলা) প্রতিনিধি   

১৯ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



চরফ্যাশন উপজেলায় বিষপান করা এক তরুণের মৃত্যুর জন্য পল্লী চিকিৎসককে দায়ী করা হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে শশীভূষণ থানায়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মৃতের নাম মো. রাহাদ (২০)। তিনি উপজেলার শশীভূষণ থানার চরকলমী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ রমিজউদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাহাদ বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টায় নিজবাড়িতে বিষ পান করেন। তাঁকে চরফ্যাশন হাসপাতালে আনার পথে আঞ্জুরহাট বাজারের পল্লী চিকিৎসক মোস্তফা তাঁকে (রাহাদ) ফার্মেসিতে নিয়ে চিকিৎসা দেন। অবস্থার বেগতিক দেখে তাঁকে সন্ধ্যায় ৬টা ৫০ মিনিটে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে ৬টা ৫৫ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক হিলারী ইয়াছমিন মৃত ঘোষণা করেন।

রমিজ উদ্দিন চৌকিদার বলেন, ‘আঞ্জুরহাটের মোস্তফা ডাক্তার বিষপান করা ছেলেকে ওয়াশ করার জন্য পাঁচ হাজার টাকা দাবি করেন। আমি দুই হাজার টাকা দিয়েছি। রোগীর শেষ অবস্থায় সন্ধ্যার পরে চরফ্যাশন হাসপাতালে নিতে বলে।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুুক এক ব্যক্তি বলেন, ‘বিষপানের সঙ্গে সঙ্গে ওয়াশ করা হলে এ রোগী বেেঁচ যেত। তাকে গ্রাম্য ডাক্তার হাতে ধরে রেখে মেরে ফেলেছে।’

পল্লী চিকিৎসক মোস্তাফা বলেন, ‘বুধবার ৫টার সময় বিষ খাওয়া রোগী রাহাদকে আমার চেম্বারে আনা হয়। আমি ওয়াশ করি। তার পর রোগী সুস্থ ছিল। আমি বলেছি, এসব  রোগীর নিশ্চয়তা নেই। তুমি হাসপাতালে নেও। আমাকে দুই হাজার টাকা দিয়ে হাসপাতালে নিয়ে গেছে।’ রাহাদ প্রেমিকার সঙ্গে অভিমান করে বিষপান করেন বলে তাঁর বাবা জানিয়েছেন।

শশীভূষণ থানার ওসি হানিফ সিকদার জানান, ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন এলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 



মন্তব্য