kalerkantho


একজনের স্বীকারোক্তি

আখাউড়ার ‘পাগলিকে’ গণধর্ষণ শেষে হত্যা করে পাঁচ মাদকাসক্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় গত ৯ সেপ্টেম্বর লাশ উদ্ধার হওয়া নারীকে গণধর্ষণ শেষে হত্যা করে পাঁচ মাদকসেবী। গতকাল বুধবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একটি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আসামি আবু সাঈদ এ তথ্য জানিয়েছে। ওই ঘটনায় মো. রানা নামে আরো এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জবানবন্দি দেওয়া আবু সাঈদ কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার আব্দুস সাদিরের ছেলে। গ্রেপ্তার হওয়া রানা আখাউড়া পৌর এলাকার দেবগ্রামের মৃত জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে। গত মঙ্গলবার বিভিন্ন সময়ে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।

আখাউড়া থানার ওসি মো. মোশারফ হোসেন তরফদার ও পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ আরিফুল আমীন জানান, পৌর এলাকার রেলওয়ে উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশের একটি জঙ্গল থেকে আঙ্গুরি বেগম নামের হবিগঞ্জের এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়ভাবে তিনি বেবি পাগলি হিসেবে পরিচিত ছিলেন। হত্যাকাণ্ডের পর প্রথমে ওই নারীর পরিচয় নিশ্চিত করা হয়।

 



মন্তব্য