kalerkantho


চবিতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ, আহত ৬

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ের প্রতিক্রিয়ায় আনন্দ মিছিলকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ছয় ছাত্রলীগকর্মী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গতকাল বুধবার দুপুরের দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসের সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যা ৭টায় এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত দুই গ্রুপই দুই হলে অবস্থান করছিল। ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সংঘর্ষে জড়ানো দুই গ্রুপের মধ্যে বিজয় গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছেন চবি ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি সুজন, অন্যদিকে সিএফসি গ্রুপের একই কমিটির সহসভাপতি রেজাউল হক রুবেল। এ দুটি গ্রুপই চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের অনুসারী হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত। 

সংঘর্ষে আহতরা হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের সাদ্দাম হোসাইন, অর্থনীতি বিভাগের মোহাইমিন, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের নাসিম চৌধুরী ও মার্কেটিং বিভাগের রেদওয়ান ইবনে সাত্তার। তাঁরা সবাই ফজলে রাব্বি সুজনের অনুসারী। অন্যদিকে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শরীফুল ইসলাম এবং আইন বিভাগের সাদাফ খান কবির রেজাউল হক রুবেলের অনুসারী হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত। আহতরা চবি মেডিক্যাল সেন্টারে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র  জানায়, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ের প্রতিক্রিয়ায় ফজলে রাব্বি সুজনের নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল বের হয়। মিছিল শেষে প্রক্টর অফিসের সামনে তাঁদের নেতাকর্মীরা অবস্থানকালে সিএফসি গ্রুপের নেতাকর্মীরা বিজয় গ্রুপের চার কর্মীকে মারধর করে। পররর্তী সময়ে ওখানেই দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। পরে বিজয় গ্রুপের নেতাকর্মীরা সোহরাওয়ার্দী হলে ও সিএফসি গ্রুপের নেতাকর্মীরা আমানত হলে অবস্থান নিয়ে ইটপাটকেল ছোড়াছুড়ি করতে থাকে। এ সময় সিএফসির দুই কর্মী আহত হন।

এ বিষয়ে বিজয় গ্রুপের নেতা ফজলে রাব্বি সুজন কালের কণ্ঠকে বলেন, সকাল থেকে তাঁদের কোনো অবস্থান ছিল না, আনন্দ মিছিলেও ছিল না। তাঁদের কর্মীরা প্রক্টর অফিসের সামনে অবস্থানকালে তাঁদের ওপর জামায়াত-শিবিরের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে ওই ছাত্রলীগ নামধারীরা অতর্কিত হামলা চালায়। এ ছাড়া তারা ক্যাম্পাসে যৌন নির্যাতনকারী, মাদক ব্যবসায়ী ও সাংবাদিক মারধরকারী হিসেবে পরিচিত। তিনি প্রশাসনকে  অবিলম্বে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানিয়েছেন।



মন্তব্য