kalerkantho


জাবিতে চারজনকে মারধর

জড়িতদের বিচার দাবিতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) দুই শিক্ষার্থী ও দুই দর্শনার্থীকে মারধর ও লাঞ্ছিত করার ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসংলগ্ন সড়কে এ কর্মসূচি পালন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনে ঢুকে ক্যাম্পাসে ইচ্ছামতো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে আসছে কিছু উচ্ছৃঙ্খল শিক্ষার্থী। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা না নেওয়ায় তারা অপরাধের মাত্রা বাড়িয়ে দিয়েছে। এখন সেটি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে সাধারণ শিক্ষার্থী, দর্শনার্থী, সাংবাদিক এমনকি ছাত্রীরাও রেহাই পাচ্ছে না। এসব ‘কুলাঙ্গারের’ বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান বক্তারা। মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে জাবি প্রেস ক্লাব, জাবি সাংস্কৃতিক জোট, জাবি সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

জাবি প্রেস ক্লাবের নিন্দা : এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত সাংবাদিক ও জাবি প্রেস ক্লাবের দপ্তর সম্পাদক মাহমুদুল হক সোহাগ ও এক ছাত্রীসহ চারজনকে মারধর ও লাঞ্ছিতের ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছে জাবি প্রেস ক্লাব। গতকাল এক বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।

উপাচার্য ও প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা বিভাগসংলগ্ন এলাকায় দুই দর্শনার্থীকে মারধর ও ছিনতাইয়ে বাধা দেওয়ায় সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের মাহমুদুল হক সোহাগ এবং তাঁর সঙ্গে থাকা একই বিভাগের এক নারী শিক্ষার্থীকে মারধর ও লাঞ্ছিত করেন নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের ৪২তম আবর্তনের শিক্ষার্থী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী নিলয়, বাংলা বিভাগের ৪৫তম আবর্তনের শিক্ষার্থী শুভাশীষ ঘোষ, লোকপ্রশাসন বিভাগের ৪৭তম আবর্তনের শিক্ষার্থী সোহেল রানা ও ইয়া-রাফিউ শিকদার আপন। অভিযুক্তরা শহীদ রফিক জব্বার হলের আবাসিক ছাত্র ও ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।



মন্তব্য