kalerkantho


চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

১১ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) চুরি ও মারধরের ঘটনায় ১১ ছাত্রলীগকর্মীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার করেছে প্রশাসন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে চবি প্রক্টর অফিসে আনুষ্ঠানিকভাবে সাংবাদিকদের এসব তথ্য নিশ্চিত করেন প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী।

চবি প্রক্টর সাংবাদিকদের জানান, গত ১০ সেপ্টেম্বর শাটল ট্রেনে এক সাংবাদিককে মারধরের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা ও ইংরেজি বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মাহামুদুল হাসান রুপককে এক বছরের জন্য এবং একই ঘটনায় ইতিহাস বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মো. সাব্বির হোসেন, রাজিবুল আলম  ও মার্কেটিং বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের তৈমুর হোসেনকে দুই মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। তাঁরা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক সংগঠন বিজয় গ্রুপের নেতাকর্মী বলে জানা যায়।

এর আগে গত ৯ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের লেডিস ঝুপড়িতে কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শান্তনু নাথ এবং যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সালাউদ্দিন চৌধুরীকে মারধরের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের এমাদ উদ্দিন, লোকপ্রশাসন বিভাগের ইব্রাহিম খলিল, ইসলামের ইতিহাস বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের সালাউদ্দিন সাজ্জাদ এবং ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের পদার্থবিদ্যা বিভাগের লিপটন দাশকে দুই মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

এদিকে গত ৩০ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের মেরিন সায়েন্সেস বিভাগের ও আমানত হলের আবাসিক ছাত্র মো. জাহিন খন্দকারের কক্ষ থেকে ল্যাপটপ ও মোবাইল চুরির ঘটনায় একই বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের কাউসার ইবনে কাসেম ও মো. রিফাত হাসানকে ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ২৯ মার্চ ইতিহাস বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র গিয়াস উদ্দিন হিমেল ও তাঁর অভিভাবককে মারধরের ঘটনায় আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র সামদানি রহমান জিকুকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।



মন্তব্য