kalerkantho


‘অবৈধ বাংলাদেশিরা’ উইপোকা

বিজেপি সভাপতির বক্তব্যে খোদ ভারতেই বিস্ময়

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



কথিত অবৈধ বাংলাদেশিদের এবার ‘উইপোকা’র সঙ্গে তুলনা করেছেন ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। শনিবার রাজস্থানে এক অনুষ্ঠানে তিনি ভারতে ‘অবৈধ বাংলাদেশিদের’ উইপোকার সঙ্গে তুলনা করে দাবি করেছেন, এক এক করে তাদের সবার নাম ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হবে। ভারতে আগামী বছরের প্রথমার্ধে লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনপূর্ব রাজনীতির মতো এবারও ‘অবৈধ অভিবাসী’ ইস্যু বেশ গুরুত্ব পাচ্ছে। বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্কের সবচেয়ে ভালো সময়ে কথিত অবৈধ বাংলাদেশিদের নিয়ে ভারতে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের দায়িত্বশীল নেতার এমন বক্তব্য তাঁর নিজ দেশেই বিস্ময় সৃষ্টি করেছে।

নয়াদিল্লিভিত্তিক সংবাদ সংস্থা দ্য প্রিন্টের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সম্পাদক শেখর গুপ্ত এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘যখন প্রতিবেশীদের মধ্যে বাংলাদেশই আমাদের (ভারতের) একমাত্র বন্ধু, তখন ভোটের জন্য কেন এই গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্কের সর্বনাশ করা হচ্ছে? এটি নির্বোধের রাজনীতি।’

দ্য হিন্দুর কূটনৈতিকবিষয়ক সম্পাদক সুহাসিনী হায়দার টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘আশ্চর্যের বিষয় হলো, সরকার (ভারত সরকার) অনিশ্চিত অভ্যন্তরীণ সুবিধার জন্য বাংলাদেশের সঙ্গে সুসম্পর্ককে ঝুঁকিতে ফেলতে চাচ্ছে। ভারতীয় কূটনীতিকরা উদ্বিগ্ন। কিন্তু তাঁরা (ভারতীয় কূটনীতিকরা) প্রতিবেশীদের ওপর এমন মন্তব্যের প্রভাব নিয়ে কিছু বলবেন না।’

দ্য টেলিগ্রাফের দিল্লিভিত্তিক রোভিং এডিটর সংকর্ষণ ঠাকুর বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর বক্তব্যসংবলিত একটি খবর শেয়ার করে টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘আমাদের ক্ষমতাসীন দলের নেতার এমন বর্ণনা বাংলাদেশে আমাদের প্রতিবেশীরা পড়ে কী ভাববেন?’

বিবিসি বাংলার অনলাইনে গতকাল রবিবার “ভারতে অবৈধ বাংলাদেশিদের কেন ‘উইপোকা’ বলে আক্রমণে বিজেপির নেতা অমিত শাহ?” শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘কিছুদিন আগেই বিজেপির আরেক প্রভাবশালী নেতা রাম মাধব কথিত অবৈধ বিদেশিদের বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে বলে ঘোষণা করেছিলেন। এখন রাজস্থানের একটি জনসভায় স্বয়ং বিজেপি সভাপতি বাংলাদেশিদের উইপোকা বলে আক্রমণ করলেন।’

ভারতের বিরোধী দলগুলো মনে করছে, নির্বাচনের আগে স্রেফ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই বিজেপি আবার এই অবৈধ বিদেশিদের ইস্যু খুঁচিয়ে তুলতে চাইছে। তবে বিজেপি সে অভিযোগ মানতে নারাজ।

 

 



মন্তব্য