kalerkantho


বরিশালে চেয়ারম্যান হত্যা

জনপ্রতিনিধিসহ ৩৯ জনের নামে মামলা

বরিশাল অফিস   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বরিশালের উজিরপুরে জল্লা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু হত্যার ঘটনায় জনপ্রতিনিধিসহ ৩৯ জনকে আসামি করে উজিরপুর মডেল থানায় মামলা হয়েছে। এরই মধ্যে গ্রেপ্তার হওয়া পাঁচজনকে গতকাল রবিবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এদিকে এ হত্যার প্রতিবাদে সকালে উপজেলা সদরের ইচলাদীতে বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের পাশে ও জল্লা ইউনিয়নের কারফা বাজারে আলাদা দুটি বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল জল্লা ইউনিয়নের কারফা বাজারে গিয়ে দেখা যায়, ওই এলাকা এখনো থমথমে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। পাশাপাশি টহল দিচ্ছে র‌্যাব সদস্যরাও। কারফা বাজারের অধিকাংশ দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। জল্লা ইউনিয়নের শত শত নারী-পুরুষ কারফা বাজারে অবস্থান নিয়ে বিশ্বজিৎ হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে স্লোগান দিতে দেখা গেছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী নির্মল বিশ্বাস বলেন, ‘স্বাধীনতার পর থেকে হিন্দু অধ্যুাষিত জল্লা ইউনিয়নে আপদে-বিপদে সব সময় আমাদের পাশে ছিলেন সাবেক চেয়ারম্যান অবনী বাড়ৈ। জোট সরকারের আমলে তাঁকে সর্বহারা সদস্যরা গুলি করে হত্যা করে। ওই ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত ছিল তারা প্রভাবশালী হওয়ায় বিচার পায়নি অবনীর পরিবার। পরে অল্প বয়সে বিশ্বজিৎ এ ইউনিয়নের মানুষের পাশে থেকে সহাস জুগিয়েছিলেন। সবার খোঁজখবর নিতেন। তাঁকেও হত্যা করা হলো।’

জগদীশ হালদার নামে স্থানীয় যুবক বলেন, ‘একের পর এক অভিভাবক হত্যা হলে জল্লাবাসীর বেঁচে থাকার কোনো মানে নেই। অবনীর পরে বিশ্বজিৎই ছিলেন আমাদের ভরসাস্থল। নোংরা রাজনীতির কারণে তাঁকেও আমরা হারালাম। আমাদের দেখার আর কেউ রইল না।’

স্থানীয় সমাজকর্মী নাসিমা বেগম বলেন, ‘জল্লা ইউনিয়ন হিন্দু অধ্যুষিত হলেও এখানে সব ধর্ম-বর্ণের মানুষের  সহাবস্থান ছিল।’

মামলা : চেয়ারম্যান বিশ্বজিেক হত্যার ঘটনায় তাঁর বাবা মুক্তিযোদ্ধা শুকদেব হালদার বাদী হয়ে ৩৯ জনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। মামলায় বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুসের ব্যক্তিগত সহকারী আবু সাইয়েদ ও শোলক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী হুমায়ুন কবির, জল্লা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জামাল মল্লিক, সাবেক ইউপি সদস্য ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি তাইজুল ইসলাম পান্নু, শোলক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী হুমায়ুন কবির, জল্লা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জামাল হোসেন মল্লিক, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মামুন শাহ, জেলা পরিষদের সদস্য উর্মিলা বাড়ৈর ছেলে অনন্ত বাড়ৈ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা হরশিদ রায় ও আবু ইউসুফের নাম রয়েছে।

বিক্ষোভ সমাবেশ : বিশ্বজিৎ হত্যার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে গতকাল উজিরপুরের ইচলাদীতে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. জামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য তালুকদার মো. ইউনুস, উজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবাল, পৌর মেয়র গিয়াস উদ্দিন বেপারী, আব্দুল মজিদ বাচ্চু, মাওলাদ হোসেন সানা প্রমুখ। এদিকে দুপুরে জল্লা ইউনিয়নের কারফা বাজারে স্থানীয়রা বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে।

বামনায় হিন্দু মহাজোটের মানববন্ধন : এদিকে বামনা (বরগুনা) প্রতিনিধি জানান, বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু হত্যার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে বামনা উপজেলা বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট ও যুব মহাজোট। সকালে বামনা উপজেলার গোলচত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।



মন্তব্য