kalerkantho


চাকরিপ্রার্থীর জানা দরকার...

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



চাকরিপ্রার্থীর জানা দরকার...

রিজিউমের অবজেকটিভ

একটা সময় ছিল যখন রিজিউমের ‘ক্যারিয়ার অবজেকটিভ’ অংশে চাকরিপ্রার্থীরা বিস্তর স্বপ্নের কথা তুলে ধরতেন। কিন্তু সময় বদলেছে। প্রতিষ্ঠানগুলো এখন এসব কথা শুনতে চায় না। আপনি কী কী করতে চান, কী স্বপ্ন দেখছেন তা রিজিউমের গুরুত্বপূর্ণ অংশ নয়। এটা বাদ দেওয়াই ভালো।

বেতন না জানা

ইন্টারভিউয়ে প্রশ্ন কর্তাদের সঙ্গে আলোচনাতে বুঝে নেওয়া যায় আপনার সম্ভাবনা কতটুকু। যদি তাঁরা সরাসরি আপনাকে নেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন এবং বেতন বিষয়ে কিছু না বলতে চান, তবে আপনাকেই মুখ খুলতে হবে। আপনার বেতন কত হবে এটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের একটি। আগেভাগে এটি জেনে নিন। নয়তো অন্যান্য কথায় অযথা সময় অপচয় হবে। বেতন জানার পর আপনার চাহিদা নিয়ে কথা বলতে পারেন।

একাধিক পদে আবেদন

কোনো প্রতিষ্ঠান অনেক ধরনের পদের জন্যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে পারে। অনেকে ধরে নেন, একাধিক পদের জন্যে আবেদন করলে একটিতে হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। এটা ভুল ধারণা। হয়তো বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ থাকে না, কিন্তু প্রতিষ্ঠানগুলো একাধিক পদে আবেদন করা প্রার্থীকে বাতিল করে দেয়।

রিজিউমের আকার

সাধারণত দুই পাতার মধ্যেই একটি মানসম্পন্ন রিজিউম প্রস্তুত করা সম্ভব। কিন্তু আপনার অভিজ্ঞতা এবং কর্মক্ষেত্রের পরিধি অনেক বেশি হতে পারে। একটি পাতা বাড়তি জুড়ে দেওয়া অপরাধ নয়। কাজেই নিশ্চিন্তে দুই বা তিন পাতার মধ্যে রিজিমের ইতি টানুন। আপনাকে যে এক পাতার মধ্যেই করতে হবে—এমন বাঁধাধরা নিয়ম নেই।

পরে কল করতে বলা

যখনই কল করা হোক না কেন তখনই সাড়া দিন। ইন্টারভিউয়ে গিয়ে প্রার্থীদের সঙ্গে বসতে হয়। সেখান থেকে একে একে প্রার্থীদের ডাকা হয় ইন্টারভিউয়ের টেবিলে। সেখানে আপনার ডাক এলে কখনোই বলবেন না যে আপনি পরে যাবেন। এটা এক অর্থে অভদ্রতা। আবার অন্য অর্থে, আপনার সাহস বা প্রস্তুতি নেই। আবার ফোনে আপনাকে ইন্টারভিউয়ের কথা বলা হলে অবশ্যই কথা বলে দিনক্ষণ জেনে নেবেন।

টাইমস জবস অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার



মন্তব্য