kalerkantho


মন্ত্রীর পত্রের ফল

বাংলাদেশ ব্যাংকে সাইবার নিরাপত্তা টিম গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের পীড়াপীড়িতে চার সদস্যের সাইবার নিরাপত্তা কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ কমিটি সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে কাজ করবে। গতকাল মঙ্গলবার কমিটি গঠন করে অর্থ মন্ত্রণালয়কে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হিউম্যান রিসোর্সেস ডিপার্টমেন্ট ১-এর মহাব্যবস্থাপক নূর-উন-নাহার স্বাক্ষরিত চিঠিতে অর্থ মন্ত্রণালয়কে বলা হয়, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রীর পাঠানো চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য চার সদস্যের একটি ‘সাইবার নিরাপত্তা টিম’ গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে রয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সিস্টেমস ম্যানেজার মুহাম্মদ ইসহাক মিয়া, সিনিয়র সিস্টেমস অ্যানালিস্ট মসিউজ্জামান খান, সিনিয়র মেইনটেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ তাউহিদুল আলম ও মেইনটেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ার ফাহাদ জামান চৌধুরী।

সম্প্রতি বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) সাইবার স্ক্যানার বসিয়ে দেখতে পেয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংকের অনেক কম্পিউটার থেকে এখনো ম্যালওয়ারের মাধ্যমে তথ্য হাতাচ্ছে চীন, জাপান, রোমানিয়া ও কাজাখস্তানের হ্যাকাররা। এ বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরকে চিঠি দিয়েছিলেন টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

চিঠিতে মোস্তাফা জব্বার বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের মতো রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য সাইবার নিরাপত্তা টিম গঠনসহ সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা জরুরি হয়ে পড়েছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিতে অর্থ মন্ত্রণালয়কে অনুরোধও করেন তিনি। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ের অগ্রগতি জানাতে গভর্নরকে চিঠি দেওয়া হয় গত ৯ আগস্ট। এর পরই কমিটি গঠন করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাইবার সিস্টেম এখন আর ততটা ঝুঁকিতে নেই বলে মনে করেন সংস্থাটির কর্মকর্তারা। তাঁরা বলছেন, রিজার্ভের অর্থ নিয়ে কাজ করা ডিলিং রুমের কম্পিউটারগুলো এখন খুবই সতর্কতা অবলম্বন করে পরিচালনা করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্ভার এখন চারদিক থেকে এমনভাবে ঘিরে আনা হয়েছে যে সেখান থেকে আর্থিক লোকসান ঘটার কোনো আশঙ্কা নেই।

 



মন্তব্য