kalerkantho


‘রাষ্ট্রীয় মদদে সাইবার অপরাধ বাড়ছে’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বিশ্বব্যাপী সাইবার হামলায় অর্থ আদায়ের ঘটনায় রাষ্ট্রীয় যোগসূত্র দিন দিন বেড়েই চলেছে, এমন দাবি করেছে ইউরোপীয় পুলিশ সংস্থা ইউরোপোল। রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের জন্য সাইবার হামলা করা হচ্ছে, নাকি এটা স্রেফ একটা অপরাধ, সেটা আলাদা করাও প্রায় ক্ষেত্রে মুশকিল হয়ে দাঁড়াচ্ছে বলে মন্তব্য করেছে সংস্থাটি। গতকাল মঙ্গলবার ইউরোপোল এসব মন্তব্য করে।

সাইবার অপরাধবিষয়ক বার্ষিক প্রতিবেদনে ইউরোপোল জানায়, সাইবার হামলার মাধ্যমে অর্থ আদায়ের ঘটনা আবার বেড়েছে। নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগভিত্তিক এ সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়, অর্থ আদায়ের জন্য সাইবার হামলার পাশাপাশি রাষ্ট্রীয় মদদে সাইবার হামলার ঘটনাও উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। তবে কোনটা রাষ্ট্রীয় মদদে পরিচালিত সংঘবদ্ধ হামলা আর কোনটা অপেশাদার ব্যক্তির হামলা, সেটা আলাদাভাবে শনাক্ত করা দিন দিন আরো কঠিন হয়ে যাচ্ছে।

সাইবার হামলার ধরন বদলে যাওয়া প্রসঙ্গে ইউরোপের এ আইন প্রয়োগকারী সংস্থা জানায়, সাইবার হামলাকারীরা নির্বিচারে হামলার পরিবর্তে এখন নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে লক্ষ্যবস্তু বানাচ্ছে এবং সেখানে থাকছে বড় ধরনের লাভের সম্ভাবনা। পরিবর্তনের আরেকটি দিক হলো, অপরাধীরা প্রচলিত ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের পরিবর্তে আজকাল ডিজিটাল মুদ্রা বিনিময় ব্যবস্থা, যেমন বিটকয়েনকে লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। এসব পরিবর্তনের পাশাপাশি প্রচলিত ধারায় সাইবার হামলা এখনো অব্যাহত আছে বলে জানায় ইউরোপোল। তাদের বার্ষিক প্রতিবেদনে অনলাইনে শিশুদের ওপর যৌন হয়রানির প্রসঙ্গও আনা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র গত ৬ সেপ্টেম্বর অভিযোগ করে, ওয়ানাক্রাই শীর্ষক ম্যালওয়্যারের মাধ্যমে হ্যাকিং, ২০১৪ সালে সনি পিকচারের ওপর সাইবার হামলা, সাইবার ডাকাতির মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ পাচারের ঘটনা ঘটেছে উত্তর কোরিয়ার সরকারের নির্দেশে। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য গত ফেব্রুয়ারিতে অভিযোগ করে, ইউক্রেনে অস্থিতিশীলতা বাড়াতে রাশিয়ার সেনাবাহিনী নতপেতিয়া শীর্ষক সাইবার হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে।

সূত্র : এএফপি।



মন্তব্য