kalerkantho

এরশাদ বললেন

দেশে সুশাসন নেই, যা খুশি তাই হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশে সুশাসন নেই, যা খুশি তাই হচ্ছে। লুট হচ্ছে ব্যাংক। গুম আর খুনের রাজ্যে পরিণত হয়েছে দেশ। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা-১৭ আসনের কচুক্ষেত এলাকায় গণসংযোগকালে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর দেশের সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন করেছে জাতীয় পার্টি। তাই জাতীয় পার্টি ছাড়া এ দেশে কোনো নির্বাচন হবে না। কোনো দল জাতীয় পার্টির জায়গায় আসতে পারবে না। আরেকবার আমারে সুযোগ দেন। আমি দেখাতে চাই উন্নয়ন কাকে বলে, সুশাসন কাকে বলে।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আরো বলেন, জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর খালেদা জিয়াকে আমি বাড়ি দিয়েছিলাম, সন্তানদের লেখাপড়ার খরচ দিয়েছিলাম। আর খালেদা জিয়া আমাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছিলেন। জেলখানায় চিকিৎসা দেওয়া হয়নি, ঈদের নামাজ পর্যন্ত পড়তে দেওয়া হয়নি। খালেদা জিয়া আমাকে বিনা বিচারে টানা ছয় বছর জেলে রেখেছেন, অমানুষিক নির্যাতন করেছেন। বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি নির্যাতনের শিকার হয়েছি আমি। ভাগ্যের পরিহাস খালেদা জিয়াই এখন কারাগারে।

স্থানীয় ভোটারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, তিনটি আসনে নির্বাচন করব। এর মধ্যে ঢাকা-১৭ এবং রংপুর সদর নিশ্চিত হয়েছে। ২০০৮ সালের নির্বাচনে এই আসনে সাধারণ মানুষ আমাকে প্রায় দেড় লাখ ভোট বেশি দিয়ে নির্বাচিত করেছিল। আবারও নির্বাচন করব, দেশের মানুষকে গুম, খুন থেকে মুক্তি দেব।

এ সময় মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দেশের দু-একটি আসন বাদ দিয়ে, যেখানে নির্বাচন করবেন, সেখানেই বিজয়ী হবেন। এরশাদ ছাড়া দেশের মানুষকে কেউ শান্তি দিতে পারেনি।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নুরু, আমানত হোসেন আমানত, শামসুল হক, সুলতান আহমেদ সেলিম, মো. জসীম উদ্দিন ভূঁইয়া, মো. হেলাল উদ্দিন, নাসির উদ্দিন প্রমুখ।

 

 

 

মন্তব্য