kalerkantho


রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আবার জেলে

সিলেট অফিস   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আবার জেলে

সিলেটের আলোচিত শিল্পপতি রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আব্দুল হাইকে আবার কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। সিলেটের তারাপুর চা বাগানের দেবোত্তর সম্পত্তি আত্মসাৎ ও জালিয়াতির মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হিসেবে গতকাল আদালতে হাজির হলে তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়।

সিলেট জেলা জজকোর্টের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট শামিম আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গতকাল বুধবার দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক মোহাম্মদ মোস্তাইন বিল্লাহ তাঁদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

তিনি জানান, তারাপুর চা বাগানের দেবোত্তর সম্পত্তিতে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের মাধ্যমে হাজার কোটি টাকার ভূমি আত্মসাৎ এবং

জালিয়াতির একটি মামলায় রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আব্দুল হাইয়ের পক্ষে জামিন আবেদন জানানো হয়।  শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর হয়।

এর আগে আলোচিত এই মামলায় ২০১৭ সালের ২ ফেব্রুয়ারি রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আব্দুল হাইয়ের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির পাঁচটি পৃথক ধারায় সর্বমোট ১৪ বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করেন সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরোর আদালত। এরপর এই রায়ের বিরুদ্ধে আসামিরা আপিল করলে গত ৯ আগস্ট সিলেটের বিশেষ দায়রা জজ দিলীপ কুমার ভৌমিক নিম্ন আদালতের দেওয়া ১৪ বছরের কারাদণ্ড বহাল রেখে রায় দেন। একই সঙ্গে রাগীব আলী ও তাঁর ছেলেকে ১৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করে অবশিষ্ট সাজা ভোগের নির্দেশ দেওয়া হয়। এই আদেশের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল রাগীব আলী ও তাঁর ছেলে আদালতে হাজির হলে তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়।

উল্লেখ্য, ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি করে সিলেটের তারাপুর চা বাগানের সম্পত্তি আত্মসাতের এই মামলায় ২০১৬ সালের ১২ আগস্ট আদালত রাগীব আলী ও তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। কিন্তু ওই দিনই তাঁরা দুজন  ভারতে পালিয়ে যান। পরে তারা গ্রেপ্তার হলে প্রায় ১১ মাস জেলে কাটান। ২০১৭ সালের ২ ফেব্রুয়ারি সিলেটের আদালত তাদের ১৪ বছর করে কারাদণ্ড দেন। কিন্তু উচ্চ আদালতে থেকে জামিনে মুক্তি পান



মন্তব্য