kalerkantho


প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট বিল সংসদে উত্থাপন

বিজ্ঞানীরা পরামর্শ সেবা দিয়ে ফি নিতে পারবেন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএফআরআই) বিজ্ঞানীরা বেসরকারি ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, প্রাণিসম্পদ, শিল্প স্থাপনা বা অনুসন্ধানবিষয়ক পরামর্শ সেবা দিয়ে সরকার নির্ধারিত হারে ফি নিতে পারবেন। জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ‘বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট আইন-২০১৮’ শীর্ষক বিলে এমন বিধান রাখা হয়েছে। গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে বিলটি উত্থাপন করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া অধিবেশনে বিলটি উত্থাপনের পর বিলটি অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য সংশ্লিষ্ট সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

বিদ্যমান অধ্যাদেশ সংশোধন, পরিবর্ধন ও পরিমার্জনের মাধ্যমে প্রণীত ওই বিলে মৎস্যসম্পদ চিহ্নিত, সংরক্ষণ, চাষ ও উৎপাদনের জন্য নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে ক্রমবর্ধমান মানুষের প্রাণিজ পুষ্টি চাহিদা পূরণে মৎস্য সম্পদের ওপর গবেষণা করতে একটি ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার বিধান রাখা হয়েছে। বিলে নতুন চারটি ধারা যুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে ধারা-৮-এ বোর্ডের কার্যাবলি এবং ধারা-২১-এ ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানীর দেওয়া পরামর্শ বাবদ অর্জিত ফি ও এর ব্যবহার সম্পর্কে বলা হয়েছে। এ ছাড়া ধারা-২২-এ আইনটি বাংলার পাশাপাশি ইংরেজিতে প্রকাশ এবং বাংলা পাঠে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। আর ধারা-২৩-এ রহিতকরণ ও হেফাজত সংক্রান্ত বিষয়ে বলা হয়েছে।

আরো তিনটি বিল উত্থাপন : সংসদ অধিবেশনে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী ‘কৃষি বিপণন বিল-২০১৮’ এবং ‘জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন-২০১৮’ উত্থাপন করেন। এ ছাড়া পণ্য উৎপাদনশীল রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিকদের চাকরির শর্ত নির্ধারণে ‘পণ্য উৎপাদনশীল রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পপ্রতিষ্ঠান শ্রমিক (চাকরির শর্তাবলি) আইন-২০১৮’ নামে একটি বিল উত্থাপন করেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। বিল তিনটি সংশ্লিষ্ট সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

চারটি বিলের রিপোর্ট উত্থাপন : সংসদে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চারটি বিলের রিপোর্ট উপস্থাপিত  হয়েছে। বিলগুলো হলো  বস্ত্র বিল-২০১৮, বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড (সংশোধন) বিল-২০১৮, যৌতুক নিরোধ বিল-২০১৮ ও সিলেট মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় বিল-২০১৮।



মন্তব্য