kalerkantho


খুলনায় হত্যার দায়ে ১০ জনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



খুলনার তেরখাদা উপজেলার কুমিরডাঙ্গা গ্রামের কলেজছাত্র শেখ বদরুদ্দোজা হত্যা মামলায় ১০ আসামিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছর সশ্রম কারাবাসের আদেশ দেওয়া হয়েছে। বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ রব হাওলাদার বৃহস্পতিবার এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন নবির হোসেন ওরফে নবি, তবিবুর রহমান ওরফে তবি, আকা মিয়া শেখ, খাজা মিয়া শেখ, বুলু মিয়া শেখ, অসিকার শেখ, চান মিয়া শেখ, এহিয়া শেখ ও কামাল শেখ। তাঁরা সবাই কুমিরডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা। রায় ঘোষণার সময় সবাইকে আদালতের কাঠগড়ায় হাজির করা হয়। অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় অন্য দুই আসামি কুমিরডাঙ্গা গ্রামের সুলতান আহমেদ শেখ ও উত্তর আজগড়া গ্রামের আব্বাসুর রহমানকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ২০০৯ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী শেখ বদরুদ্দোজা স্থানীয় মসজিদের ইমাম আব্বাসুর রহমানকে বলেন, জোহরের নামাজের পর মক্তবে ছেলে-মেয়েদের পড়ালে নামাজে বিঘ্ন ঘটে। এরপর দুপুর আড়াইটার বদরুদ্দোজা পাশের পুকুরে গোসল করতে গেলে আসামি নবীর হোসেন সেখানে হাজির হয়ে এ বিষয়ে বদরুদ্দোজার কাছে কৈফিয়ত দাবি করেন। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয়। একপর্যায়ে নবীর হোসেনের সঙ্গে অন্যরা যোগ দিয়ে লাঠি ও লোহার রড দিয়ে বদরুদ্দোজাকে এলোপাতাড়িভাবে মারধর করে। গুরুতর অবস্থায় বদরুদ্দোজাকে প্রথমে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে পরদিন ভোরবেলায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের ভাই শেখ মো. আছাদুজ্জামান বাদী হয়ে ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে তেরখাদা থানায় হত্যা মামলা করেন।

 

 



মন্তব্য