kalerkantho


তথ্যমন্ত্রী বললেন

আদালতকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানোর ঝোঁক গণতন্ত্রের জন্য বিপজ্জনক

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘বেগম জিয়ার আদালতের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানোর ঝোঁক বিচারহীনতার অপসংস্কৃতি জিইয়ে রাখারই চক্রান্ত। এটি গণতন্ত্রের জন্য বিপজ্জনক।’ গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশন শিল্পী সংস্থার সঙ্গে মতবিনিময়কালে তথ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন। মন্ত্রী এ সময় শিল্পীদের সম্মানী, শ্রেণিবিন্যাস ও বিভিন্ন দাপ্তরিক সুবিধা পুনরায় পর্যালোচনা করে যুগোপযোগী করে তোলার পক্ষে মত দেন।

রাজনীতির ক্ষেত্রে শিল্পীদের অবদান কোনো অংশেই কম নয় উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আদালতে যাবেন না বলে আদালতের ওপর রাজনৈতিক তকমা আরোপ করে বেগম জিয়া একদিকে নিজের অপরাধ আড়াল করার চেষ্টা করছেন, অন্যদিকে আদালতকেও রাজনৈতিকভাবে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছেন। এ অপচেষ্টার বিষয়ে সবার সঙ্গে শিল্পীদেরও সতর্ক থাকতে হবে।’

ইনু বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপি পঁচাত্তরের পর থেকে দীর্ঘদিন বিচারহীনতার অপসংস্কৃতিই চর্চা করেছে। খুনি-অপরাধীদের বিচারের ঊর্ধ্বে রাখার অপচেষ্টা করেছে। আদালতের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে বেগম জিয়া বিচারহীনতার মধ্যে বসবাস করার ইচ্ছা ব্যক্ত করেছেন। গণতন্ত্রের জন্য এটি বিপজ্জনক একটি ঝোঁক। তারা একাত্তরের যুদ্ধাপরাধ, বঙ্গবন্ধু হত্যা, আগুনসন্ত্রাস, মানুষ পোড়ানো, দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অপরাধের মামলাগুলোকে রাজনৈতিক মামলা বলে চালানোর অপচেষ্টা  করে অপরাধীদের বাঁচানোর চেষ্টা করছে।’ শিল্পী সংস্থার সভাপতি ড. ইনামুল হক, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আজম বাশারসহ বেতার ও টেলিভিশনের শিল্পীরা সভায় আলোচনায় অংশ নেন। তথ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আবুয়াল হোসেন, অতিরিক্ত সচিব মো. আজহারুল হক, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আমির হোসেন, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক নারায়ণ চন্দ্র শীল এ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

 



মন্তব্য