kalerkantho


সড়ক দুর্ঘটনায় দুই স্থানে তিনজন নিহত

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ও নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইয়াল গ্রামে সিএনজিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে মোটরসাইকেল আরোহী ইরেশ সরকার (৩০) ও সোহেল মিয়া (৩২) নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ছয়জন। তা ছাড়া কিশোরগঞ্জের ভৈরবে বাসচাপায় পথচারী আশরাফুল আলম মিলন (৩৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন।

জানা গেছে, গত বুধবার রাত ১০টার দিকে হাইওয়ে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে সিএনজিচালক পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় বেপরোয়া গতিতে পালাতে গেলে মোটরসাইকেলের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। তাতে আহত দুজনকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ইরেশ সরকার নবীগঞ্জ উপজেলার স্বস্তিপুর গ্রামের বারীন্দ্র সরকারের ছেলে এবং সোহেল মিয়া করগাঁও গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে। আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পরে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা হাইওয়ে পুলিশের দুই সদস্যকে আটক করে লাঞ্ছিত করে। খবর পেয়ে সার্কেল এএসপি পারভেজ আলম চৌধুরী ও নবীগঞ্জ থানার ওসি এস এম আতাউর রহমান এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এদিকে গত বুধবার সন্ধ্যায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবের কমলপুর নিউটাউন এলাকায় বাসচাপায় নিহত মিলনের বাড়ি বরিশালের মুলাদি উপজেলায়। ভৈরবে একটি কম্পানির জোনাল ম্যানেজার পদে কর্মরত ছিলেন তিনি। স্থানীয় লোকজন বাসচালক মো. বাছির মিয়াকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

ভৈরব হাইওয়ে থানার ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বাসটি অপর বাসকে ওভারটেক করতে গিয়ে পথচারী মিলনের ওপর তুলে দেয়। তাতে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।

 



মন্তব্য