kalerkantho


পাবনার ঈশ্বরদীতে এক স্থানে পাহারার সুযোগে অন্যত্র ডাকাতি

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



পাবনার ঈশ্বরদীর এক ইউনিয়নে ডাকাতির খবর পেয়ে পুলিশ-জনতা মিলে সারা রাত পাহারা দেয়। এ সুযোগে ডাকাতরা পাশের ইউনিয়নে ডাকাতির ঘটনা ঘটায়। গত বুধবার রাতে উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের চরমিরকামারী মাথালপাড়া গ্রামের এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে ডাকাতির এই ঘটনা ঘটে।

ঈশ্বরদী থানার ওসি আজিম উদ্দিন বলেন, ‘উড়ো খবরে জানতে পারি, রাতে সাঁড়া ইউনিয়নের পদ্মানদী এলাকায় ডাকাতি হতে পারে। এ খবরের ভিত্তিতে চেয়ারম্যান রানা সরদারের সঙ্গে আলোচনা করে পাহারা বসানো হয়। এই সুযোগে ডাকাতরা পাশের ইউনিয়ন ছলিমপুরে ডাকাতি করে। বিষয়টিকে সতর্কতার সঙ্গে দেখা হচ্ছে।’

স্থানীয় সাঁড়া ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুল হক রানা সরদার বলেন, বুধবার রাতে পুলিশ প্রশাসন জানায় যে ইউনিয়নের আমড়বাড়িয়া বাজার এলাকা থেকে মাঝদিয়া গ্রামে রাতে ডাকাতি হতে পারে। পরে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসী মিলে গ্রামের মোড়ে মোড়ে পাহারার ব্যবস্থা করে। সবাই মিলে সারা রাত পাহারা দেয়। পরে সকালে শোনা যায়, পাশের ছলিমপুর ইউনিয়নের চরমিরকামারী মাথালপাড়া গ্রামে ডাকাতি হয়েছে। তবে ওই ইউনিয়নে ডাকাতি প্রতিরোধে পাহারা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

ডাকাতির শিকার ধান চাতাল ব্যবসায়ী সহির উদ্দিন বলেন, আটজন ডাকাত মুখোশ পরে বাড়ির বাইরের লোহার গেট কেটে ভেতরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে সবাইকে জিম্মি করে। ডাকাতরা ঘরে রাখা ব্যবসার নগদ আট লাখ টাকা, ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসেটসহ বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায়।

এদিকে বুধবার রাতে উপজেলার রামচন্দ্র বহরপুরে আমিনুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির বাড়িতেও ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতরা পুলিশকে ব্যস্ত রাখতে এক এলাকায় ডাকাতির খবর দিয়ে অন্য এলাকায় ডাকাতি করছে বলে ধারণা করছে থানা পুলিশ।

 

 



মন্তব্য