kalerkantho


ওবায়দুল কাদের বললেন

খালেদার হাজিরার সুবিধা করে দিতেই বিশেষ আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সংবিধানের কোথাও লেখা নেই যে কারাগারে আদালত বসানো যাবে না। তিনি বলেন, ‘বয়স বিবেচনায় খালেদা জিয়ার পক্ষে কোর্টে মুভ করা সব সময় হয়তো সম্ভব না। জিয়া চ্যারিটেবল যে মামলা, সেই মামলায়ও তো তিনি হাজিরা দিচ্ছিলেন না। এ অবস্থায় তাঁর হাজিরা দেওয়ার সুবিধা করে দিতেই এই বিশেষ আদালতের ব্যবস্থা।’

গতকাল বুধবার বিকেলে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির এক যৌথ সভার শুরুতে এসব কথা বলেন তিনি।

‘কারাগারের ভেতরে মামলা পরিচালনার সরকারি সিদ্ধান্ত সংবিধানের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।’ গতকাল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কারাগারের মধ্যে বিশেষ আদালত সংবিধানের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন কী কারণে? কোথায় লেখা আছে যে এ ধরনের আদালত বসতে পারবে না? কারাগারের মধ্যে কোর্ট বসানো যাবে না। এটা তো চালু করেছেন জেনারেল জিয়াউর রহমান। কর্নেল তাহেরকে কারাগারে কোর্ট বসিয়ে ফাঁসি দিয়েছিলেন। এটা কি বিএনপি ভুলে গেছে? কিভাবে কর্নেল তাহেরের ফাঁসি হয়েছিল, কোথায় হয়েছিল? এটা সংবিধানের কোথাও লেখা নেই যে কারাগারের মধ্যে বিশেষ প্রয়োজনে বিশেষ আদালতের ব্যবস্থা করা যাবে না।’

বিএনপির সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি বিচার মানে না, আদালত মানে না, সংবিধান মানে না—এটাই হচ্ছে বিএনপির বৈশিষ্ট্য। এটাই বিএনপির চরিত্র। এটা আদালতের বিষয় আদালতই সেটার জবাব দেবে।’

আওয়ামী লীগের যৌথ সভায় সভাপতিত্ব করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অসীম কুমার উকিল, সুজিত রায় নন্দী, বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

 



মন্তব্য