kalerkantho


ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

বগুড়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

নিজস্ব প্রতিবেদক ফরিদপুর ও বগুড়া   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের খোয়ার গ্রামে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে সাখাওয়াত হোসেন ওরফে সাকু মুহুরি (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যায় আহত হওয়ার পর রাত ৮টার দিকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। খালেক মুহুরির ছেলে সাকু ভাঙ্গা মুন্সেফ আদালতে মুহুরির কাজ করতেন। এ ঘটনায় পুলিশ সাতজনকে আটক করেছে। থানায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

এদিকে বগুড়ার ধুনটে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সজীব ইসলাম নামের এক ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে ধুনট এনইউ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটে। আহত সজীবকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি ধুনট সদরপাড়া গ্রামের স্বর্ণকার শাহ আলীর ছেলে এবং ধুনট ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

ফরিদপুরের ঘটনা সম্পর্কে এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, উপজেলার গট্টি ও পাশের আটঘর ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওদুদ মাতুব্বরের সমর্থকদের সঙ্গে গট্টি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ফজলুল মতিন বাদশা এবং ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শহিদুল হাসান খান ওরফে সোহাগ খানের বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে গত সোমবার সকাল ১১টার দিকে আটঘরের সিংহপ্রতাপ গ্রামে দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে পাঁচজন আহত হয়। এ সময় একটি বাড়িও ভাঙচুর করা হয়।

পরে বিকেলে ভাবুকদিয়া গ্রামে দুই পক্ষে সংঘর্ষ হলে সাখাওয়াতসহ আরো পাঁচজন আহত হয়। গুরুতর অবস্থায় সাখাওয়াতকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রাত ৮টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

 

 



মন্তব্য