kalerkantho


মির্জা ফখরুল বললেন

ঐক্যবদ্ধ জনগণ সরকারের ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার এখন একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করার পথে হাঁটছে। এখানে জনগণের রায় দেওয়া ও নেওয়ার কোনো পথ খোলা রাখা হচ্ছে না। এ অবস্থায় জনগণের ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। আর ঐক্যবদ্ধ জনগণই এই সরকারের সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে।

গতকাল সোমবার সুপ্রিম কোর্টের একটি অনুষ্ঠান থেকে বের হওয়ার সময় গত রবিবার সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ফখরুল এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য গোটা জাতিকে হতাশ করেছে। এখন তিনি একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা পথে এগোচ্ছেন। জনগণের রায় নেওয়ার কোনো পথ দেখতে পাচ্ছি না। সব দল সমান সুযোগ নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে—সেই ইচ্ছাও তাদের নেই।

নির্বাচন সংবিধানসম্মতভাবে হবে, এটা ঠেকানোর শক্তি কারো নেই—প্রধানমন্ত্রীর এ রকম বক্তব্যের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, এটা তো তিনি (শেখ হাসিনা) বলেই আসছেন। এসব কথা বলেই তো তাঁরা ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে চান, রাষ্ট্রযন্ত্রগুলোকে ব্যবহার করে তাঁরা একদলীয় শাসনব্যবস্থা প্রবর্তন করতে চান। জনগণকে এখানে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে এবং জনগণ ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাঁদের ষড়যন্ত্র পরাজিত করবে।

আলোচনার পথ নাকচ হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে করণীয় জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, বিএনপির সামনে এখন পথ জনগণ। জনগণই এর উত্তর দেবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের রাজনীতিতে এখন বড় সংকট হচ্ছে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে একটা অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন, যা দেশের মানুষের দাবি। সেই দাবিগুলোকে প্রধানমন্ত্রী নাকচ করে দিয়েছেন এবং বলেছেন যে সংবিধান অনুযায়ী সব কিছু হবে। কিন্তু সংবিধান তো মানুষের তৈরি করা। এর আগে যে সংবিধান ছিল সেটা তো তাঁরাই পরিবর্তন করেছেন। সংবিধান তো অসংখ্যবার কাটছাঁট করে তাঁরা তাঁদের সুবিধামতো করে নিয়েছেন।

 



মন্তব্য