kalerkantho


শ্রম, মানবাধিকার পরিস্থিতি দেখতে আসছে ইইউ দল

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



শ্রম ও মানবাধিকার পরিস্থিতি যাচাইয়ে ছয় দিনের সফরে আগামী ১১ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আসছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) একটি প্রতিনিধিদল। প্রতিনিধিদলে ইইউর বাণিজ্য, কর্মসংস্থান ও সামাজিক বিষয়াদি সংক্রান্ত মহাপরিচালক পর্যায়ের তিনজন কর্মকর্তা থাকবেন। সম্প্রতি পররাষ্ট্রসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোকে ইইউ চিঠি দিয়ে এ তথ্য জানায়।

চিঠিতে ইইউ ‘এভরিথিং বাট আর্মস’ (অস্ত্র ছাড়া সব পণ্য) পদ্ধতির আওতায় তাদের বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের ‘অগ্রাধিকারমূলক সুবিধা’ (জিএসপি) পাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে বলেছে, এ সুবিধা পাওয়ার প্রধান শর্ত হলো আন্তর্জাতিক সনদ অনুযায়ী মানবাধিকার ও শ্রম অধিকার পূরণ করা। ইইউ বাংলাদেশের শ্রম পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে আসছে। আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) সাম্প্রতিক সম্মেলন থেকে বাংলাদেশকে শ্রম আইন সংশোধনে যেসব সুপারিশ ও পরামর্শ দিয়েছিল, সেগুলোর বাস্তবায়ন দেখতে চায় ইইউ।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ইইউ প্রতিনিধিদলটি তাদের আসন্ন সফরে বাংলাদেশে মানবাধিকার ও শ্রম অধিকার পরিস্থিতির খোঁজখবর নেবে। গত ২৫ জুন ব্রাসেলসে ‘সাসটেইনেবিলিটি কম্প্যাক্টের’ বৈঠকে চলতি সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে বাংলাদেশে রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা (ইপিজেড) আইন সংশোধনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো জানায়, বাংলাদেশের সঙ্গে ইইউর সম্পর্কের মূলভিত্তি হলো মানবাধিকার। ইইউ বিভিন্ন সময় বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগের বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে।

 

 



মন্তব্য