kalerkantho


গাজীপুরে সড়ক মহাসড়কে বদলে গেছে দৃশ্যপট

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সড়ক দুর্ঘটনার জন্য দায়ী লেগুনা, ইজি বাইক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা, বেবি চলাচল গাজীপুরের সড়ক-মহাসড়কে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। গাজীপুরে সদ্য যোগদানকারী পুলিশ সুপারের নির্দেশে এসব যানবাহন বন্ধ করে দেওয়ায় বদলে গেছে দৃশ্যপট। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের টঙ্গী থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত গতকাল শনিবার কোনো যানজট হয়নি। একই চিত্র ছিল গাজীপুর-টাঙ্গাইল ও জয়দেবপুর-চান্দরা চৌরাস্তা সড়কেও। তবে হঠাৎ এসব যানবাহন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে নগরবাসীকে। বাসের জন্য যাত্রীদের বিভিন্ন স্ট্যান্ডে অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। অতিরিক্ত যাত্রীর চাপে বাসচালকরা দ্বিগুণ ভাড়া আদায় করেছে বলেও অভিযোগ করেছে যাত্রীরা।

দুর্ঘটনা রোধে লেগুনা, ব্যাটারিচালিত রিকশা, ইজি বাইক, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, বেবি ও নসিমন-করিমন মহাসড়কে নিষিদ্ধ; কিন্তু গাজীপুরে সড়ক-মহাসড়কে অবাধে চলছিল এসব যানবাহন। এতে মহাসড়কে প্রতিদিন ভয়াবহ যানজট ও দুর্ঘটনা ঘটত। শামসুন্নাহার গাজীপুরের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগ দেওয়ার পরপরই বিভিন্ন মহল থেকে একের পর এক এসব অবৈধ ও ফিটনেসবিহীন যানবাহন বন্ধের দাবি জানানো হয়। সেই দাবির ভিত্তিতে ১ সেপ্টেম্বর থেকে এসব যানবাহন না চালাতে পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়। এ ছাড়া সড়ক-মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ফুটপাতে হকার না বসতেও নির্দেশনা দেন পুলিশ সুপার। ওই নির্দেশনার পর গতকাল বদলে যায় দৃশ্যপট। গতকাল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সড়ক-মহাসড়ক ঘুরে দেখা গেছে, কোথাও কোনো তিন চাকার গাড়ি ও লেগুনা চলছে না। বড় বড় লেগুনা ও অটোরিকশার স্ট্যান্ডগুলো ছিল ফাঁকা।



মন্তব্য