kalerkantho


সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠক

কোন্দল মেটাতে জেলা সফরে যাবেন ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



দলকে নির্বাচনমুখী করা ও অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিরসনে দেশের বিভিন্ন জেলায় সাংগঠনিক সফরে যাবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গতকাল শনিবার বিকেলে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক হয়। এতে উপস্থিত একাধিক সূত্র কালের কণ্ঠকে এমনটা জানিয়েছে।

সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগকে নির্বাচনমুখী করতে ও সংগঠনের অভ্যন্তরীণ কোন্দল সমাধানের লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের আগামী ৮ সেপ্টেম্বর থেকে বিভিন্ন এলাকায় সাংগঠনিক সফরে যাবেন। সূত্র আরো জানায়, আওয়ামী লীগের নবনির্মিত কেন্দ্রীয় কার্যালয়কে শিগগিরই সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের কেন্দ্র করার সিদ্ধান্ত হয়। বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের এ কার্যালয়টিতে চলতি মাসেই রাজশাহী বিভাগের একটি প্রতিনিধিসভা অনুষ্ঠিত হবে।

বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপির মতো ব্যর্থ দল আর কোথাও নেই। তারা সব সময় সর্বাত্মক আন্দোলনের কথা বলে। কিন্তু তারা এমন কোনো আন্দোলন করতে পারেনি, যার কারণে সরকার গত ১০ বছরে দুই মিনিটের জন্য অস্বস্তিতে পড়েছে। এ ব্যর্থতার দায় নিয়ে বিএনপির টপ টু বটম সব নেতাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানাচ্ছি।’

সরকারকে পদত্যাগে বিএনপির আহ্বান প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কেন পদত্যাগ করবে? এই সরকারের গণভিত খুব শক্তিশালী। এই সরকারের ভিত এ দেশের মাটির অনেক গভীরে।’

নির্বাচন সামনে রেখে ক্ষমতাসীন জোট সম্প্রসারণের সম্ভাবনা প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জোটের শরিকদের জন্য ৬৫ থেকে ৭০টি আসন ছেড়ে দেওয়ার চিন্তা-ভাবনা করছে আওয়ামী লীগ’

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এখানে সরকারের কিছু নেই। এটা আদালতের বিষয়। লিগ্যাল ব্যাটেলে জয়লাভ করে তারা তাদের নেত্রীকে মুক্ত করে আনতে পারে। এ ক্ষেত্রে সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না।’

 



মন্তব্য