kalerkantho


শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় পিতা-পুত্র গ্রেপ্তার

রংপুর অফিস   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



রংপুরে ৫০ টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র নাহিদ হাসান লেমনকে পেটানোর ঘটনায় অভিযুক্ত ইংরেজ আলী ও তাঁর ছেলে জাহিদুলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রবিবার নগরের হোসেননগর এলাকায় শিশুটিকে গাছের সঙ্গে বেঁধে টানা ছয় ঘণ্টা নির্যাতন করা হয়। এ নিয়ে গতকাল কালের কণ্ঠে ‘টাকা চুরির অপবাদ, রংপুরে শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন’ শিরোনামে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার দিন ওই এলাকার ইংরেজ আলীর বাড়ির উঠানে শিশু লেমন খেলছিল। এ সময় পেছন দিক থেকে ‘চোর চোর’ বলে চিৎকার দিয়ে ইংরেজ আলী ও তাঁর ছেলে জাহিদুল শিশু লেমনকে ধরে গাছের সঙ্গে বেঁধে ছয় ঘণ্টা নির্যাতন করে। ইংরেজ আলী প্রভাবশালী হওয়ায় ঘটনাস্থলে উপস্থিত কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়নি।

এলাকার লোকজন জানায়, প্রভাবশালী ইংরেজ আলী স্থানীয় কাউন্সিলরকে দিয়ে সালিসি বৈঠক করে উল্টো নির্যাতিত শিশুটিকে কান ধরে ওঠবোস করার শাস্তির ব্যবস্থা করেন। আর ইংরেজ আলীকে জরিমানা করা হয় ১০ হাজার টাকা। এ ঘটনার প্রতিবাদসহ অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মঙ্গলবার এলাকাবাসী বিক্ষোভ করে।

স্থানীয় বাসিন্দা হেলাল উদ্দিন জানান, নির্যাতনের একপর্যায়ে শিশুটি অচেতন হয়ে পড়লে এলাকার লোকজন ওই দিন তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। কিন্তু শিশুটি সুস্থ হওয়ার আগেই ঘটনার দুই দিন পর মীমাংসার কথা বলে হাসপাতাল থেকে তাকে ছাড়িয়ে আনে ইংরেজ আলীর লোকজন। বিষয়টি প্রকাশ না করার জন্য তারা হুমকিও দেয়।

রংপুর কোতোয়ালি থানার ওসি মুক্তারুল আলম শিশু নির্যাতনকারী ইংরেজ আলী ও জাহিদুলকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নির্যাতনের শিকার শিশুটির ভাই মিল্লাত হোসেন বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।



মন্তব্য