kalerkantho


বাসে অগ্নিনির্বাপক রাখার সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



সড়ক দুর্ঘটনায় ক্ষতি এড়াতে বাস ও অন্যান্য যানবাহনে নিয়ম অনুসারে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র রাখার ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা বলছেন, দুর্ঘটনায় প্রাণহানি কমাতে পারে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র। অনেক ক্ষেত্রে যাত্রীবাহী বাস দুর্ঘটনার পর আগুনে পুড়ে গেলে যাত্রীদের বেশি ক্ষতি হয়। সরকারও বাসে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র রাখা বাধ্যতামূলক করেছে।

বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের হরতাল-অবরোধকালে পেট্রলবোমার আগুনের ভয়ে বাসে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র রাখা শুরু হয়েছিল। পরে একপর্যায়ে ওই অভ্যাস বন্ধ হয়ে গেছে।

বিআরটিএ সূত্রে জানা গেছে, মোটরযান অধ্যাদেশ অনুযায়ী, স্টেজ ক্যারেজ মোটরযানের রুট পারমিট অনুমোদনের ক্ষেত্রে আরটিসির আরোপযোগ্য শর্তগুলোর মধ্যে অনুমোদিত অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র রাখার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত আছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সব জেলার আরটিসি ও মেট্রো আরটিসির কাছে চিঠিও দিয়েছে বিআরটিএ।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, যেভাবে দুর্ঘটনা বেড়েছে তাতে করে বাসে অগ্নিকাণ্ড ঘটলে ক্ষতি বেশি হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। এ জন্য বাসে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র রাখা দরকার।

 



মন্তব্য